ধোনি নিজেই একটা শিরোপা!

0 ১৫২
মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি : চেন্নাইয়ের ফেসবুক ভেরিফায়েড পেজ ও আইপিএল

আইপিএলের ফাইনালে আজ রোববার (২৮ এপ্রিল) যখন গুজরাট অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে টস করতে নামবেন মহেন্দ্র সিং ধোনি, তখন তৈরি হবে মিশ্র এক অনুভূতি। পেছন ফিরে কি তাকাবেন তিনি?

সেই ২০০৮ সালে প্রথম আসরে গায়ে জড়ান চেন্নাইয়ের হলুদ জামা। তারপর কতজন এলো গেল, কতকিছু বদলালো, ধোনি রয়ে গেলেন। সূর্যের রাঙা হলুদে দিলেন সোনালি সাফল্যের ছোঁয়া। মাঝে দুই মৌসুম নিষিদ্ধ ছিল চেন্নাই, ধোনি খেলেছেন রাইজিং পুনে সুপারস্টারের হয়ে। সেখানে অধিনায়ক ছিলেন না তিনি। নিজেকে বোধহয় পরবাসী ভেবেছিলেন।

২০০৮ সালে ২৬ বছর বয়সী টগবগে যুবক, যিনি ফাইনালে উঠিয়েছিলেন চেন্নাইকে। ১৫ বছর পর ৪১ বছরের বুড়ো সেই একই মঞ্চে, একই দলের হয়ে ফাইনালে টস করতে নামবেন। আইপিএলে ধোনির সম্ভাব্য শেষ ম্যাচ এটি।

ভক্তদের ভালোবাসার দুর্দান্ত ‘মাহি’ আজ গড়বেন আরও একটি রেকর্ড। আইপিএলে এটি হবে তার ২৫০ তম ম্যাচ। আড়াই শ ম্যাচ খেলতে পারেনি আর কেউই। ক্যাপ্টেন কুল ডাকা হয় তাকে। ঠান্ডা মাথায় প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে যার জুড়ি নেই। এই করে করেই চেন্নাইকে ১৪ আসরে ফাইনালেই উঠিয়েছেন ১০ বার। চারবার শিরোপা জিতিয়েছেন। রাইজিং পুনের হয়েও ফাইনাল খেলেছিলেন একবার। হিসাব তাহলে দাঁড়ালো ১৬ আসরে ১১ বারই ফাইনালের মঞ্চে একটি চেনা নাম— ধোনি।

ধোনির ক্যারিয়ারের পুরোটাই অর্জনের পালকে মোড়ানো। শূন্যতার কিছু নেই। জাতীয় দল, ক্লাব, ব্যক্তিগত অর্জনের পাশাপাশি ভক্তদের ভালোবাসায় সিক্ত ৪১ বছর বয়সী ধোনিকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, এবার বিদায় বলার সময় হয়েছে কি না? ক্যাপ্টেন কুল সাফ জানিয়ে দিলেন, “এখনই না! আমি সবসময় চেন্নাইয়ে আসতে চাই, খেলোয়াড় কিংবা অন্য ভূমিকায়।”

চেন্নাইতেই তো আসতে চাইবেন। তিনি যতটা ভারতীয় ক্রিকেটের, প্রায় ততটাই চেন্নাইয়ের। নিজ হাতে গড়ে তুলেছেন রবীন্দ্র জাদেজা, সুরেশ রায়নাদের। একটা প্রজন্মকে উঠে আসতে দেখেছেন। দেখেছেন, তাদের জায়গা ছেড়ে দিতে চলে যাচ্ছেন সমসাময়িকরা। ধোনি রয়ে গেছেন সরব আলাপে। এবার হয়তো নিরব প্রলাপ হবে চেন্নাইয়ে।

প্রথম কোয়ালিফায়ারে চেন্নাইয়ের এম চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে নিজ মাঠে সম্ভাব্য শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন ধোনি। ভক্তরাও তাকে বিদায় দিয়েছে গ্যালারিজুড়ে ফ্ল্যাশ লাইটের আলো আঁধারির খেলায়। ধোনিবিহীন আইপিএল কি কল্পনা করতে পারছে কেউ? ধোনি নিজেও পারছেন? হয়তো মনে মনে চিঠি চাইবেন বেনামে, উড়ো চিঠি।

শেষটা রাঙাতে গুজরাট টাইটান্সের বিপক্ষে শিরোপা আনতে পারবেন কি না, সেটি সময় বলবে। শিরোপা না জিতলেও ক্ষতি নেই। ধোনি নিজেই তো আস্ত এক শিরোপা, যাকে বহুদিন ধরে জিতে বসে আছে চেন্নাই সুপার কিংস।

Leave A Reply

Your email address will not be published.