নভজোৎ সিং সিধু আটক, উত্তর প্রদেশে নিষিদ্ধ পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী

১২২
ভারতের উত্তর প্রদেশে চার কৃষকসহ আট ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদ করায় আটক হয়েছেন পাঞ্জাব প্রদেশ কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি নবজোৎ সিং সিধু। ছবি : সংগৃহীত

ভারতের উত্তর প্রদেশের লখিমপুর খিরি জেলায় চার কৃষকসহ আট ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদ করায় এবার আটক হয়েছেন পাঞ্জাব প্রদেশ কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি নবজোৎ সিং সিধু।

এর আগে আটক করা হয়েছে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ও সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদবকে। তারা দুজনও কৃষক হত্যার প্রতিবাদ করেছিলেন। খবর এনডিটিভির।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার উত্তর প্রদেশে কৃষক হত্যার প্রতিবাদে পাঞ্জাবের চণ্ডিগড়ে রাজ্য গভর্নরের বাসভবনের বাইরে কংগ্রেস নেতাকর্মীদের নিয়ে বিক্ষোভে অংশ নেন সিধু।

নতুন কৃষক আইন বাতিলের দাবিতে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন তারা। এ সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় কুমার মিশ্রের ছেলের গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি। এরপরই সিধু ও তার সঙ্গে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া কংগ্রেসের আরও নেতাকর্মীকে আটক করে চণ্ডিগড় পুলিশ।

অন্যদিকে, লখিমপুর খিরি জেলায় যেতে চেয়েছিলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নী। কিন্তু উত্তর প্রদেশ সরকার অনুমতি দেননি।

এর আগে পাঞ্জাবের উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুখজিন্দর সিং রন্ধাওয়াকেও লখনউ বিমানবন্দরে নামার অনুমতি দেওয়া হয়নি।

কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী অজয় কুমার মিশ্র ও উত্তরপ্রদেশের উপ-মুখ্যমন্ত্রী কেশব মৌর্যর সফর বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন এলাকার কৃষকরা। অভিযোগ উঠেছে, এ সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বহরের একটি গাড়ি (গাড়িটিতে অজয় মিশ্রর ছেলে ছিল বলে অভিযোগ) দুই কৃষককে পিষে মেরে ফেলেছে। খবরটি ছড়িয়ে পড়ার পরই উত্তেজনা ও সংঘাত ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় চার কৃষকসহ মোট আটজন নিহত হয়েছেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, লখিমপুরের ঘটনায় কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলেসহ উত্তর প্রদেশের কয়েকজন সিনিয়র কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করা হয়েছে।

Comments are closed.