নিয়ামতপুরের ভাবিচা ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়নে রুপ দিতে চায় পিন্টু 

১৩২
শাহজাহান শাজু, নিয়ামতপুর নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু ক্ষমতায় নয় জনসেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিতে চান। তিনি ভাবিচা ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়নে রুপ দিতে চান। ভাবিচা ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবার পর সততা ও নিষ্টার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন তিনি।
উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু
এর রাজনীতিক ও ব্যক্তিগত ইমেজ, সৎ, সাহসী সমাজসেবক  গরীব দুখীদের বন্ধু এসব কর্মকান্ড দেখে এবারে ইউপি নির্বাচন করলে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী বলে মনে করছেন এলাকার সূধীজন।
তিনি ভাবিচা ইউনিয়নের জনগনকে সেবা দিয়ে নিজেকে বিলিয়ে দিতে চান! সাধারণ মানুষের মাঝে, ক্ষমতা নয় সেবক হিসেবে সকলের দোয়া ও সমর্থন চাইছেন তিনি।
ইতিমধ্যে তিনি ও তার সমর্থকগগন ইউনিয়নের প্রত্যেক গ্রামে জন-সংযোগ করে সকলের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন।
মাদক সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত ইউনিয়ন গড়তে নিরলস ভাবে কাজ করেছেন উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু । ইতোমধ্যে ইউনিয়নে শিক্ষা, সংস্কৃতিক ও খেলাধুলার মান উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রেখেছেন তিনি।
উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু মনে করেন, এই ইউনিয়নে আদিবাসী সহ সকল ধর্মালম্বীদের নিয়ে সৌহার্দপূর্ন অবস্থান নিশ্চিত করা তার জীবনের অন্যতম লক্ষ।
উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু সাংবাদিকদের বলেন, শুরুতে এ ইউনিয়ন পরিষদের জনগণ তাদের নাগরিক অধিকার থেকে অনেকটাই বঞ্চিত ছিল। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই ইউনিয়ন এলাকার উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রেখেছেন।
আধুনিক ও উন্নত ইউনিয়ন গড়তে পিন্টু এলাকাবাসীর কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চান।
ভাবিচা ইউনিয়নের আসনদী গ্রামের আকতার ও রুবেল, কুমরইল গ্রামের কালাম ও বদিউজ্জামান, ভাবিচা গ্রামের অজয় মূর্ম ও মাসুদ, ডিমার মোকলেস এবং সিনড়ার রতনসহ সকলে প্রতিবেদককে বলেন পিন্টু দাদা একজন সৎ ও সৃজনশীল ব্যক্তত্বপূর্ণ রাজনীতিবীদ। তিনি সাধারণ সম্পাদক পদ পাওয়ার পর থেকে ইউনিয়নের উন্নয়ন জোয়ার বইতে শুরু করেছে। আমরা তাঁকে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে চাই। তিনি চেয়ারম্যান হলে এই ইউনিয়নের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটবে
উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু ইতিপূর্বে বিভিন্ন সংগঠনে খেলার সামগ্রী, স্কুল, মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মানোন্নয়নে সহযোগিতা করে আসছেন। ভবিষ্যতে সেবার মান ও জনগণের আরও কাছে থেকে সেবা দিতে সকলের দোয়া, সমর্থন আবশ্যক এবং গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন।
এছাড়াও মহামারী করোনা ভাইরাস এর সময় উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু ব্যক্তি উদ্যোগে ভাবিচা ইউনিয়নের অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে আসছেন।
প্রতি ঈদে ও পূজার সময় তিনি ইউনিয়নের অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মাঝে সেমাই, লাচ্চা, চিনি, দুধের প্যাকেট, শাড়ী, লুঙ্গি বিতরণ করেন উৎপল কান্ত সরকার পিন্টু।

Comments are closed.