পুঠিয়ায় কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতারণ

276

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি : রবি মৌসুমে কৃষি প্রনোদনা কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতারণ করা হয়। শুক্রবার সকালে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

কৃষি অফিস জানায়, রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় রবি ও খরিপ-১/২০১৯-২০ মৌসুমে ৩০০ জন চাষীকে গম, ৮৫০ জন চাষীকে ভুট্টা, ৭০০ জন চাষীকে সরিষা, ১৫০ জন চাষীকে পেঁয়াজ, ২০০ জন চাষীকে শীতকালীন মুগ এবং ১০০ জন চাষীকে গ্রীষ্মকালীন মুগ ও ১৩০ জন চাষীকে তিল চাষে প্রনোদনার জন্য বরাদ্দ প্রদান কারেছেন।

এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী-৫ পুঠিয়া-দূর্গাপুর আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ মোঃ মনসুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম হিরা বাচ্চু, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মুকুল, মহিলা ভাইচ চেয়ারম্যান মৌসুমি রহমান, পৌর মেয়ার রবিউল ইসলাম রবি প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ রোমানা আফরোজ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার শামসুন নাহার ভূঁইয়া।

কৃষি অফিস আরো জানায়, সমগ্র বাংলাদেশে ৯ টি ফসলের আবাদ ও উংপাদন বৃদ্ধিতে উৎসাহ দিতে প্রায় ৭ লক্ষ ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে ৮০ কোটি ৭৪ লক্ষ টাকা প্রনোদনা দিবে সরকার। ৬ লক্ষ ৮৬ হাজার ৭০০ বিঘা ফসলি জমিতে ফসল উৎপাদনে বিনামূল্যে সার বীজ পাবে প্রায় ৭ লক্ষ ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষক।
নীতিমালা মোতাবেক ১ জন কৃষক প্রতি বিঘা জমি গম চাষের জন্য ২০ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার, ভুট্টা চাষের জন্য ২ কেজি বীজ ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপিসার, সরিষা চাষের জন্য ১ কেজি বীজ ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেচি এমওপি সার, পেঁয়াজ চাষের জন্য ১ কেজী বীজ ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপিসার, এবং তিল চাষের জন্য ১ কেজি বীজ ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপিসার ও মুগ চাষের জন্য ৫ কেজি বীজ ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার উপকরণ সহায়তা বিতরণ করেন।

x