পুঠিয়ায় নির্মানের এক বছর না যেতেই ভেঙ্গে পড়লো রির্টানিং ওয়াল

২২৭

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর পুঠিয়া রির্টানিং ওয়াল নির্মানের এক বছর না যেতেই ভেঙ্গে পড়ার ঘটনা ঘটেছে।
পুঠিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বরাদ্দকৃত কাবিখা প্রকল্পের টাকায় নির্মিত রির্টানিং ওয়াল এক বছর না যেতেই ভেঙ্গে পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে এলাকার দূর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া জন্য অনুরোধ করেছে এলকাবাসী।
জানা গেছে, গত অর্থ বছরে রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তর থেকে কাবিখা প্রকল্পর প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা বরাদ্দ পেয়ে রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের কান্দ্রা আবুল হোসেনের বাড়ীর সামনে রাস্তার পার্শ্বে পুকুরে রির্টানিং ওয়াল নির্মান করা হয়। সেই কাজের টাকা বরাদ্দ পাওয়ার পর ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফ খাঁন ঝান্টু কাজটি বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি করেন পুঠিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) ময়না বেগমকে। তিনি সভাপতি হয়ে পুঠিয়া ইউনিয়নের কান্দ্রা আবুলের বাড়ির পার্শ্বে রাস্তার ধারে পুকুরে সেই কাজ বাস্তবায়ন করেন। কিন্তু এক বছর না যেতেই সেটা ভেঙ্গে পড়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, রিটানিং ওয়াল তৈরি করেছে চেয়ারম্যান ও মেম্বার। কিন্তু ওয়ালের সাথে পিলার গুলো মানসম্মত না। যার কারণে সেখানে মাটি ফেলতেই ভেঙ্গে যায়। আর কাজের সময় সঠিক তদারকির অভাবে এমন কাজ হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।
পুঠিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) ময়না বেগম বলেন, আমরা নিয়ম অনুযায়ী সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করেছি। কিন্তু সেখানে গর্ত ভরাট করার সময় ট্রাকটর তারাহুরো করে মাটি ফেলানোর সময় ভেঙ্গে গিয়েছে।
পুঠিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফ খাঁন ঝান্টু বলেন, সেখানে গর্ত ভরাট করার সময় ট্রাকটর তারাহুরো করে মাটি ফেলানোর সময় ভেঙ্গে গেছে। আমরা মেরামত করে দেওয়ার ব্যবস্থা করছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ ফরিদুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি শুনার পর আমি সেখানে গিয়েছি। মাটি ফেলার সময় ভেঙ্গে গেছে। তবে চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলেছি। সেটা মেরামত করে দেবে।

Comments are closed.