পুঠিয়া স্টাইল করে চুল কাটায় স্কুল ছাত্রের চুল কাটলেন সভাপতি

0 101

পুঠিয়া প্রতিনিধি : রাজশাহীর পুঠিয়ার সরিষাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে কয়েকজন ছাত্রের স্টাইলিশ চুল কাটার কারণে স্কুল কর্তৃপক্ষ কয়েকজন ছাত্রের চুল কেটে দেয় সভাপতি। এ বিষয়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।
বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, স্কুলের কয়েকজন ছাত্রের মাথার চুল বড় ছিলো। রবিবার সকালে স্কুল কমিটির সভাপতি এবাদুল হক সেলুন থেকে কেচি এনে বিভিন্ন শ্রেণীর ছাত্রের মাথার চুল এলোমেলো ভাবে কেটে দেয়। এ ঘটনায় অনেক ছাত্র লজ্জায় বাড়ি চলে যায়। আবার কেউ কেউ সেলুনে গিয়ে চুল ঠিক করে নিয়েছেন। এ সময় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা স্কুলের ক্লাস বর্জনের চেষ্টা করে।
স্কুলের প্রধান শিক্ষক আফসার আলী সরদার বলেন, রবিবারের ঘটনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। কয়েকজন ছাত্র বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করে। সোমবার সকালে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস থেকে একজন প্রতিনিধি এসে বিষয়টি সমধান করে গিয়েছেন।
জানা গেছে, রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার সরিষাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে চুলকাটাকে কেন্দ্র করে সমালোচনা ঝড় উঠেছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টার হতে ৪ টা পর্যন্ত ক্লাশ চলে। স্কুলের সভাপতি বখাটে কাটিং চুলওয়ালা ছাত্রদের পূর্ব থেকে নোর্টিশের মাধ্যমে অবগত করা হলেও কিছু সংখ্যক ছাত্র মানেনি। সেই সুত্র ধরে প্রতি ক্লাসে ১ থেকে ২ জন করে ছাত্রদের চুলের আগার কিছু অংশ কেটে দেওয়া হয়। এই চুল কাটাকে কেন্দ্র করে কয়েকজন ছাত্র ঐক্য বন্ধ ভাবে বিশৃঙ্খলা করা চেষ্টা করে। পরে স্কুল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে আনে।
স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবাদুল হক বলেন, আমরা স্কুলের ছাত্রদের কে শনিবারের মধ্যে যারা স্টাইল করে চুল কটেছে তাদের চুল কাটার জন্য নোর্টিশের মাধ্যমে জানিয়ে দিই। যে সব ছাত্র সেই নির্দেশনা অমান্য করেছে আমরা তাদের চুল সামান্য করে কেটে দিয়েছি। যাতে করে তারা স্বাভাবিক ভাবে চুল কাটে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জাহিদুল হক বলেন, মাথার চুল কাটা খবর পাওয়ার পর আমার অফিস থেকে একজন প্রতিনিধি স্কুলে গিয়েছিলো। তিনি জানতে পারে স্কুল কমিটি নোর্টিশের মাধ্যমে এক সপ্তাহের মধ্যে যাদের স্টাইলিশ চুল কাটা আছে তাদের স্বাভাবিক চুল কাটার নির্দেশ প্রদান করে। এর ধারাবাহিকতায় শনিবার এক সপ্তাহ শেষ হয়। তাই কয়েকজন স্টাইলিশ চুল কাটা ছাত্র দের ধরে চুল কেটে দেয়। এতে কয়েকজন ছাত্র বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করে এ সময় কমিটির লোকজন ও শিক্ষকরা তা নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে স্কুলের ক্লাস যথা নিয়মে চলেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x