পুনীতের মৃত্যু : এক ভক্তের আত্মহত্যা, হৃদরোগে মৃত্যু ২

১৪৬
কন্নড় ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম শীর্ষ তারকা পুনীত রাজকুমার। ছবি : সংগৃহীত

ভারতের কন্নড় ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম শীর্ষ তারকা পুনীত রাজকুমারের মৃত্যুর খবরে শোকাতুর বিনোদন অঙ্গন। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে জনপ্রিয়তা ছিল তাঁর।

ইন্ডিয়া ডটকম, নিউজ ১৮-সহ একাধিক ভারতের সংবাদমাধ্যমের দাবি, পুনীত রাজকুমারের মৃত্যুর খবর শুনে আত্মহত্যা করেছেন তাঁর এক ভক্ত। এ ছাড়া হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও দুজন।

খবরে প্রকাশ, কর্ণাটকের চামরাজনগর জেলার হানুর তুলকের মারুরু গ্রামের ৩০ বছর বয়সী এক যুবক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তাঁর ঘরে স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে।

গ্রামবাসীরা জানায়, পুনীত রাজকুমারের বড় ভক্ত ছিলেন মুনিয়াপ্পা। তাঁর এমন কোনও সিনেমা নেই যে তিনি দেখতেন না। প্রিয় তারকার মৃত্যুর খবর সইতে পারেননি মুনিয়াপ্পা। টেলিভিশনের সামনে বসে কাঁদছিলেন। পরে তাঁর বুকে ব্যথা ওঠে। দ্রুত তাঁকে পুন্নাচি প্রাইমারি হেলথ সেন্টারে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন।

বেলাগাভির শিন্ডোল্লি গ্রামের এক ভক্ত পুনীতের মৃত্যুর খবর শুনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। শুক্রবার রাতে আরও এক ভক্ত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

খবরে প্রকাশ, পুনীত রাজকুমারের মৃত্যুর খবর শুনে কর্ণাটকের এক ভক্ত আত্মহত্যা করেছেন। ফাঁস লাগানোর আগে তিনি তাঁর ঘর পুনীতের ছবি দিয়ে সাজান।

উড়ুপি জেলার সালিগ্রামারের ৩৫ বছর বয়সী এক অটোরিকশাচালক পুনীতের মৃত্যুর খবর শুনে নিজের অটোরিকশার ওপর হাত দিয়ে জোরে আঘাত করে। এতে আহত হন তিনি এবং রক্ত ঝরতে থাকে। আহত অবস্থায় তাঁকে প্রাইমারি হেলথ সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে, পুনীত রাজকুমারের মরণোত্তর চক্ষুদান কার্যক্রম শেষ হয়েছে। অভিনেতার ইচ্ছে অনুসারে চিকিৎসকদের একটি দল তাঁর মৃত্যুর পর ছয় ঘণ্টার মধ্যে প্রক্রিয়া সম্পাদন করেছেন।

পুনীত রাজকুমারের বাবা কিংবদন্তি অভিনেতা ডা. রাজকুমার ১৯৯৪ সালে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তাঁর পুরো পরিবার মরণোত্তর চক্ষুদান করবেন।

গতকাল শুক্রবার জিমে শরীরচর্চা করার সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হন পুনীত রাজকুমার। এর পর বেঙ্গালুরুর বিক্রম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

স্ক্রিনশট

একাধিক ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, পুনীত রাজকুমারের মেয়ে পৌঁছালে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বেঙ্গালুরুতে আজ সন্ধ্যায় অথবা আগামীকাল শেষকৃত্য হবে পুনীতের। শনিবার বিকেলেও পুনিতের দেহ রাখা থাকবে কান্তিরাভা স্টেডিয়ামে। সেখানে তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে পারবেন সাধারণ মানুষ।

পুনীত রাজকুমারের মৃত্যুতে কর্ণাটক সরকার বাড়তি সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করছে। বেঙ্গালুরু ও তামিলনাড়ুতে ৩১ অক্টোবর মধ্যরাত পর্যন্ত মদের দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শিশু অভিনেতা হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন পুনীত রাজকুমার। ১২টি সিনেমায় শিশুশিল্পী হিসেবে কাজ করেছেন; পেয়েছেন ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও। ২০০২ সালে ‘আপ্পু’ সিনেমায় অভিনয় করে কন্নড় সিনেমায় তুমুল জনপ্রিয়তা পান তিনি। প্রায় ২৯টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন পুনীত রাজকুমার। ছিলেন কন্নড় চলচ্চিত্র জগতের সবচেয়ে পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত অভিনেতা।

Comments are closed.