প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্র হালদার ডলফিন ও জীববৈচিত্র্য রক্ষা কমিটিকে পদক্ষেপ জানানোর নির্দেশ হাইকোর্টের

0 49

চট্টগ্রাম ব্যুরো: দেশে একমাত্র মিঠা পানির প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্র চট্টগ্রামের হালদা নদীর ডলফিন ও অন্যান্য জীববৈচিত্র্য রক্ষায় জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তা প্রতিবেদন আকারে জানানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ওই প্রতিবেদন আদালতে জমা দিতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি গত ২৪ মে নতুন করে জালে আটকা পড়ে মারা যাওয়া ডলফিন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার (২৮ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আব্দুল কাইয়ুম লিটন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এর আগে গত ১৯ মে হালদা নদীর ডলফিন ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে কমিটি গঠন করে দেন হাইকোর্ট। ‘হালদা নদীর ডলফিন হত্যা রোধ, প্রাকৃতিক পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য এবং সকল প্রকার মা মাছ রক্ষা কমিটি’ নামে এই কমিটিতে হালদাতীরের এলাকার সংসদ সদস্যদের উপদেষ্টা হিসেবে রাখা হয়েছে।

কমিটিতে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসককে সভাপতি এবং চট্টগ্রামের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তাকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রাম জেলার পুলিশ সুপার, নৌ পুলিশ, কোস্টগার্ড, পরিবেশ অধিদফতর, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রতিনিধি, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ছাড়াও হাটহাজারী, ফটিকছড়ি, বোয়ালখালী, রাউজান, রামগড় ও মানিকছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মেরিন সায়েন্স অ্যান্ড ফিশারিজ অনুষদের প্রতিনিধি, জেলা প্রশাসকের মনোনীত দুইজন হালদা গবেষক, দুইজন এনজিও প্রতিনিধি এবং নদী তীরবর্তী উপজেলা চেয়ারম্যানদের কমিটিতে রাখতে বলা হয়।

এর আগে গত ১০ মে হালদা নদী থেকে একের পর এক ডলফিন হত্যা বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে ভার্চুয়াল হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। এরপর ১১ মে হালদার ডলফিন রক্ষায় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ এ সকল দেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি হালদা নদী থেকে একের পর এক ডলফিন হত্যা বন্ধে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তা জানাতে বিবাদীদের নির্দেশ দেয়া হয়

Leave A Reply

Your email address will not be published.