ফেসবুকের নেশা হতে পারে মাদকাসক্তির মতোই ভয়ঙ্কর!

0 199

লাইফস্টাইল ডেস্ক: উঠতে-বসতে, চলতে-ফিরতে আপরার চোখ ফেসবুকের পাতায়? যতক্ষণ হাতে স্মার্টফোন, ততক্ষণই সক্রিয় সামাজিক যোগোযোগ মাধ্যমে? এমন বদ অভ্যাস যদি আপনার থেকে থাকে তাহলে এখনই সাবধানি হউন। ফেসবুকের এই নেশা আপনাকে পেয়ে বসতে পারে। আর এ নেশা হতে পারে মাদকের চেয়েও ভয়ংকর। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক গবেষণা এমনটাই দাবি করছে।

মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক গবেষণার মূল উদ্যোক্তা অধ্যাপক দার মেশির কথায়, ‘এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্তত এক তৃতীয়াংশ মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করেন। এদের মধ্যে অধিকাংশ আবার দিনের বেশিরভাগ সময়েই এতে ব্যস্ত থাকেন। আমাদের বুঝতে হবে, এটা যেন নেশায় পরিণত না হয়। নির্দিষ্ট সময়ে ফেসবুক বা অন্যান্য সাইটে সক্রিয় থাকতে হবে। নাহলে বড় বিপদ।’

মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে ‘জার্নাল অফ বিহেভিয়ার অ্যাডিকশনে’। তারা ৭১ জনের ওপর এই সমীক্ষা করেছে। এদের মধ্যে অনেকেই স্বীকার করছেন, তারা ফেসবুকের ওপর মানসিকভাবে নির্ভরশীল। কোনও কারণে তার থেকে দূরে থাকতে হলে, আত্মহত্যাপ্রবণ হয়ে পড়েন, নয়তো নেশাগ্রস্ত। যার প্রভাব পড়ে তাদের চাকরি এবং পড়াশোনায়। অনেকে আবার মজে যান জুয়াখেলায়। মাদকাসক্ত হয়ে কেউ কেউ কোকেন, মিথাম্ফিটামাইনে ডুবে যাচ্ছেন।

গবেষণায় আরও দেখা গিয়েছে, ফেসবুক থেকে দূরে থেকে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছেন অনেকে। এরকম কয়েকটি নমুনা থেকে তারা ফেসবুক বা অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীদের মানসিক গঠন বোঝার চেষ্টা করেছেন। তাতেই উঠে এসেছে মূল বিষয়টি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রতি বাড়তি আকর্ষণ থেকেই অনেক সমস্যার সূ্ত্রপাত।

উল্টোদিকে, এসবের নিয়ন্ত্রিত ব্যবহারে রোজকার জীবন আপডেটও থাকে, আবার চাপ মুক্তও থাকা যায়। তাই অধ্যাপক মেশির প্রস্তাব, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে থাকুন, তবে নির্দিষ্ট সময় মেনে। তাতে আপনার উপকার বৈ ক্ষতি হবে না। কিন্তু আকর্ষণ বাড়লেই বুঝবেন, বিপদের হাতছানি।’ সূত্র: ব্রেকিংনিউজ/

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x