বগুড়ার শেরপুরে নিরীহ লোক আটক করে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ থানা পুলিশের বিরুদ্ধে

813

শেরপুর(বগুড়া)প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুরের আন্দিকুমড়া এলাকায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৪জন শ্রমজীবিকে গ্রেফতার করে থানায় এনে গভীর রাতে গোপন সখ্যতায় মুচলিকায় ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে শেরপুর থানার এএসআই জামান উদ্দিনের বিরুদ্ধে। আটককৃত হলো রিপন, আনোয়ারুল, ফজলু, কামাল।
জানা যায়, উপজেলার শাহ-বন্দেগী ইউনিয়নের আন্দিকুমড়া গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিন ছেলে রিপন, মোঃ আয়েজ উদ্দিন ছেলে আনোয়ারুল ইসলাম, আলতাব আলীর ছেলে কামাল, মোশারফ হোসেনের ছেলে ফজলু মিয়া গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে একই এলাকায় একটি চাতালে শ্রমিকের কাজ শেষে সময় কাটাচ্ছিল। এসময় শেরপুর থানা পুলিশের উপ-সহকারী পুলিশ(এএসআই) জামাল উদ্দিন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্দেহভাজন হিসেবে ওই ৪জন নিরীহ শ্রমিককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। পরবর্তীতে একই দিন গভীর রাতে গ্রেফতারকৃতদের আত্মীয় স্বজনের সাথে মোটা অংকের অর্থ বিনিময় করে মুচলিকা নিয়ে ছেড়ে দেয়।
এদিকে গ্রেফতারকৃতদের আত্মীয়স্বজনের অভিযোগ, তারা নিরীহ শ্রমিক মানুষ। সারাদিন কাজ শেষে চাতালে বসে সময় কাটানোর জন্য তাস খেলছিল। অথচ এই অপরাধে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।
এ প্রসঙ্গে থানা পুলিশের উপ-সহকারী পুলিশ(এএসআই) জামাল উদ্দিন বলেন, গ্রেফতারকৃতরা চাতালে বসে গাঁজা খাচ্ছিল। তাই তাদেরকে শাষনের জন্য গ্রেফতার করেছিলাম এবং পরে মুচলিকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

x