বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় হাত হারালেন নারী

193

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাসযাত্রী এক নারীর ডান হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ওই নারীর নাম মোছা. মাকসুদা বেগম (৩৫)। তিনি জেলার শাজাহানপুর উপজেলার ডুমুনপুকুর গ্রামের মো. ইমদাদুল হকের স্ত্রী। ৩ নভেম্বর রবিবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের রাজাপুর নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে।
পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় ওই নারীকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কিন্তু সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাৎক্ষণিক বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে মাকসুদা বেগমের অস্ত্রোপচারের জন্য হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতের স্বজনরা জানান, বগুড়া থেকে ছেড়ে যাওয়া মা রেজিয়া পরিবহনের যাত্রী ছিলেন মাকসুদা বেগম। তিনি ঢাকায় যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে মহাসড়কের ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মালবাহী ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে বাসে থাকা ওই নারীর ডান হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরবর্তীতে বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করে বলে তারা জানান।
শেরপুর হাসপাতালে জরুরি বিভাগে দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক ডা. মাহজাবিন আক্তার বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ওই নারীর শরীর থেকে অনেক বেশি রক্তক্ষরণ হয়েছে। তার অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। তাই প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বগুড়ায় পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে হাইওয়ে পুলিশের নন্দীগ্রাম কুন্দারহাট ফাড়ির ইনচার্জ জাহিদ হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বগুড়া শহরের ছিলিমপুর (মেডিকেল) ফাঁড়ির টিএসআই আব্দুল আজিজ মন্ডল জানান, দুর্ঘটনায় ওই নারীর হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তিনি গুরুতর আহত অবস্থায় বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

x