বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মদিন ও আলোচনা সভা ও সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়

0 54

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মদিন ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারবর্গ হত্যাকারীদের আদালতের পূর্ণাঙ্গ রায় কার্যকরের দাবিতে আলোচনা সভা ও সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ন্যাশনাল কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট ও ভারত বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মৈত্রী পরিষদের সভাপতি শেখ শহীদুজ্জামান বলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মদিনে আজকে আমরা জানাচ্ছি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলী। 

এই শোকাহত মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারবর্গের আদালতের পূর্ণাঙ্গ রায় কার্যকর ও বাস্তবায়ন করার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি।

জাতীয় স্বাধীনতা পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব দিপক কুমার পালিত বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ভেঙ্গে পড়া অর্থনীতির মেঘ কাটতে শুরু হয়েছে। গত ১০ বৎসর শেয়ার বাজারে ধসের কারনে অনেক লোক ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে পথে বসেছিল কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় পদক্ষেপের কারনে ফ্লোর প্রাইজ নির্ধারণ করে দেয়ায় ২৬ লক্ষ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের প্রাণ রক্ষা পেয়েছে। বর্তমানে দেশে রেমিটেন্সের রেকর্ড ২ শত ৬০ কোটি ডলার, ইতিবাচক ধারায় রপ্তানী আয় গত মাসে ৩৫১ কোটি ডলার।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে জাতীয় স্বাধীনতা পার্টির চেয়ারম্যান জননেতা মিজানুর রহমান মিজু বলেন, এই মুজিবর্ষে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত উন্নত বাংলাদেশ গড়তে পারলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মা শান্তি পাবে। তিনি আরও বলেন, সন্ত্রাস, দূর্নীতি, মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেওয়ার জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের দৃঢ় কঠোর পদক্ষেপের কারনে ভয়াবহ করোনা মহামারী থেকে কিছুটা হলেও মানুষের জীবন রক্ষা পেয়েছে।

বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। প্রতি বছরের বন্যায় অনেক ঘর-বাড়ি, সম্পদহানী, মানুষের প্রাণহানী, ব্যবসা-বাণিজ্যের যথেষ্ট ক্ষতি সাধন হয়। ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদেরকে দ্রুত পুর্নবাসন করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। আজকের সমাবেশ থেকে জাতীয় স্বাধীনতা পার্টি সরকারের অংশীদারিত্ব করার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কংগ্রেসের চেয়ারম্যান কাজী রেজাউল হোসেন, দৈনিক ফলাফল পত্রিকার সম্পাদক শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর, জাতীয় স্বাধীনতা পার্টির উপদেষ্টা লায়ন্স খান আখতারুজ্জামান, স্বাধীনতা পার্টির ভাইস-চেয়ারম্যান উত্তম কুমার চৌধুরী, বাংলাদেশ উলামা লীগের আহ্বায়ক , মাসুম বিল্লাহ্ ও ক্বারী আসাদুজ্জামান।

অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাহাবুদ্দিন, ঢাকা বিভাগের (উত্তর) ডি কে লালা। অনুষ্ঠানে দলীয় ও জাতীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জাতীয় স্বাধীনতা পার্টির চেয়ারম্যান জননেতা মোঃ মিজানুর রহমান মিজু।

Leave A Reply

Your email address will not be published.