বাদ পড়লেন যে হেভিওয়েট নেতারা

0 165

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের চিঠি বিতরণ শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। রবিবার (২৫ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের প্রধান কার্যালয়ে এই চিঠি বিতরণ শুরু হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের চিঠি বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেন।

এবার বেশ কিছু আসনে নতুন মুখ বেছে নিয়েছে আওয়ামী লীগ। বেশ কিছু আসনে হেভিওয়েট নেতারাও বাদ পড়েছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাবেক ভূমিমন্ত্রী রেজাউল করিম হীরাও।

মনোনয়ন না পাওয়াদের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত জাহাঙ্গীর কবির নানক। তিনি ঢাকা-১৩ আসনে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন। এই আসনে এবার নতুন মুখ হিসেবে সাদেক খানকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

সাদেক খান ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি। ওই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক। আওয়ামী লীগের এই প্রভাবশালী নেতা টানা দুইবারের এমপি ঢাকা-১৩ আসনের।

ছাত্রলীগের রাজনীতি দিয়ে জাহাঙ্গীর কবির নানকের উত্থান। তিনি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। পরে যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন বরিশালে জন্মগ্রহণ করা এ নেতা। ২০০৮ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে নানক স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। মোহাম্মদপুর-আদাবর নিয়ে গঠিত ঢাকা-১৩ আসন।

জামালপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক ভূমিমন্ত্রী রেজাউল করিম হীরাও মনোনয়ন পাননি। গাজীপুর-৩ আসনেও প্রার্থী বদল হয়েছে। এই আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ। এই আসনে দীর্ঘদিন ধরে এমপি ছিলেন সাবেক মন্ত্রী রহমত আলী। বার্ধক্যজনিত কারণে তাকে বাদ দেয়া হয়েছে।

বাদ পড়েছেন টাঙ্গাইলের আলোচিত সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা। তার বদলে টাঙ্গাইল-৩ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আতাউর রহমান খান। তিনি রানার বাবা।

বাদ পড়াদের তালিকায় আছে কক্সবাজারের সমালোচিত এমপি আবদুর রহমান বদিও। তবে তিনি বাদ পড়লেও ওই আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন তার স্ত্রী শাহীন আক্তার চৌধুরী।

এছাড়া আরও কয়েকজন বাদ পড়েছেন। আওয়ামী লীগ বলছে এটি চূড়ান্ত তালিকা নয়। সোমবার ( ২৬ নভেম্বর) সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সব আসনের আনুষ্ঠানিক প্রার্থী ঘোষণা করা হবে।

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম/

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x