বিচারের মুখোমুখি শ্রীলঙ্কার সেনাপ্রধান

0 131

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার গৃহযুদ্ধে ১১ জন হত্যাকাণ্ডের অভিযোগে দেশটির সেনাপ্রধান অ্যাডমিরাল রবীন্দ্র উইজেগুনারাত্নে বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন। দীর্ঘ দুই মাস পালিয়ে থাকার পর বুধবার (২৮ নভেম্বর) কলম্বোর একটি আদালতে হাজির হলে তার জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

কলম্বো ফোর্ট ম্যাজিস্ট্রেট রাঙ্গা দেশনায়েক বলেন, ‘আমি জামিন নামঞ্জুর করছি কারণ আপনি স্বাক্ষীদের প্রভাবিত করার ক্ষমতা রাখেন।’

তবে সেনাপ্রধান এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তার সঙ্গে কথা বলারও সুযোগ দিচ্ছেন না দেহরক্ষীরা। এর আগে তাকে বেশ কয়েকবার আদালতে হাজিরের নির্দেশ দেওয়া হলেও আসেননি। বুধবার সকালে নিজে এসেই আত্মসমর্পণ করেন।

আইনজীবীরা জানান, শ্রীলঙ্কায় ২৬ বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধের সময় ১১ তরুণকে অপহরণ ও খুনের ঘটনার সঙ্গে উইজগুনরত্নের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। আর এ কারণেই তাকে পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

শ্রীলঙ্কার এই সেনাপ্রধান আগামী ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত আটক থাকবেন। এই সময়ের মধ্যে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সম্পর্কে আরও তদন্ত করা হবে।

২০০৮ সালে গৃহযুদ্ধ চলার সময় শ্রীলঙ্কায় অনেক অপহরণের ঘটনা ঘটে। তখন ১১ তরুণ অপহরণ হওয়ার বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেছিল আন্তর্জাতিক কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠন। অতীতে শ্রীলঙ্কায় মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়গুলো নিয়ে সম্প্রতি তদন্ত শুরু হয়েছে। এ কারণেই ২০০৮ সালের অপহরণের ঘটনাটি নতুন করে সামনে এলো।

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম/

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x