বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান মহারণ রোববার

0 ৩২
ভারত ও পাকিস্তান দল। ছবি : আইসিসি

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই অন্যরকম উন্মাদনা, উত্তেজনা, যার জন্য সমগ্র বিশ্বের ক্রিকেট ভক্তরা থাকেন উদগ্রীব। এই দুই দলের লড়াই নিয়ে ভক্তদের মধ্যে আগ্রহের শেষ নেই। এর ওপর বিগত ১০ বছরে আইসিসি ইভেন্ট ছাড়া দুই দলের ম্যাচ দেখার সুযোগ পাননা ভক্তরা। এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর দ্বৈরথ আরও একবার দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেট বিশ্ব।

একটা সময় বিশ্ব মঞ্চে ভারতকে টক্কর দিলেও সাম্প্রতিক সময়ে তেমনটা দেখা যায়নি। ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, একপেশে জয় পেয়েছে টিম ইন্ডিয়া। যেকোনভাবে এবার হারের বৃত্ত ভাঙতে মরিয়া বাবররা। অন্যদিকে, জয়ের রেকর্ড অব্যাহত রাখতে বদ্ধপরিকর রোহিতরা। আগামীকাল রোববার (৯ জুন) নিউ ইয়র্কের নাসাউ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বহুল কাঙ্ক্ষিত এই ম্যাচ। খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায়।

২০২২ বিশ্বকাপের রানার্সআপ পাকিস্তানের শুরুটা শুরুটা ভালো হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছে বাবর আজমের দল। অপ্রত্যাশিত এমন শুরুর পর বাদ পড়ার শঙ্কা জেগেছে পাকিস্তানের। তাই ভারতের বিপক্ষে হাইভোল্টেজ ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোই মূল চ্যালেঞ্জ বাবরদের। তবে, রিজওয়ান-আফ্রিদিরা ছন্দে থাকলে জয় পেতে সমস্যা হওয়ার কথা নয় ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়নদের। তবে দুশ্চিন্তার কারণ ভারতীয় ব্যাটার বিরাট কোহলি। পাকিস্তানকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেলেই যেন জ্বলে ওঠেন এই বিশ্বসেরা ব্যাটার। গত কয়েক ম্যাচের পরিসংখ্যান সেই কথাই বলে।

অন্যদিকে, স্বাভাবিকভাবেই ফেবারিট হিসেবে খেলতে নামবে ভারতা। চলতি বিশ্বকাপের শুরুটাও দারুণ করেছে রোহিত শর্মার দল। প্রথম ম্যাচেই আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়েছে পান্ডিয়া-কোহলিরা। এর ওপর অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়ার ফর্মে ফেরাটা ভারতের জন্য স্বস্তির। এই ম্যাচেও তার দিকে তাকিয়ে থাকবে টিম ইন্ডিয়া। তবে, পাক পেসার শাহীন আফ্রিদিকে নিয়ে বেশ সতর্ক রাহুল দ্রাবিড়ের দল। কারণ অতীতে এই পেসার বেশ ভুগিয়েছে ভারতীয় ব্যাটারদের।

টি-টোয়েন্টিতে ১২ বারের দেখায় ৮টিতেই জয় পেয়েছে ভারত। বিপরীতে মাত্র তিনটি ম্যাচে জয় পাকিস্তানের। একটি ম্যাচ ড্র হয়েছে। বিশ্বকাপে সাত বারের দেখায় মাত্র ১ ম্যাচে জয় পাকিস্তানের। আর ভারতের জয় পাঁচটিতে। বাকি ম্যাচটি ড্র হয়েছে। পাকিস্তানের একমাত্র জয়টি ২০২১ বিশ্বকাপে। বাবর ও রিজওয়ানের অবিশ্বাস্য ব্যাটিংয়ে ১০ উইকেটের জয় পেয়েছিল পাকিস্তান।

অবশ্য এই ম্যাচের আগে আলোচনায় নিউ ইয়র্কের উইকেট। কেননা এই মাঠে যেকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে, তার প্রতিটিই ছিল লো স্কোরিং। যেটিকে অনেকেই ভয়ঙ্কর পিচ বলেও অভিহিত করছেন। বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট বিশ্লেষকরা এই পিচ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। বহুল প্রতিক্ষিত ভারত–পাকিস্তান ম্যাচও কি হবে লো স্কোরিং, সেটি নিয়েও রয়েছে শঙ্কা।

এদিকে, এই ম্যাচের পুরো স্টেডিয়াম যে পরিপূর্ণ থাকবে, তা তো বলাই যায়। কেননা ভারত ও আয়ারল্যান্ডের ম্যাচে সবচেয়ে কম দামের যে টিকিট ছিল, সেটির মূল্য রাখা হয়েছিল ১৫০ ডলার। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচে সর্বনিম্ন ৩০০ ডলারের টিকিট রাখা হয়েছে। যেগুলো সব বিক্রি হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। এ ম্যাচকে ঘিরে দর্শকদের আগ্রহ চিন্তা করেই সবসময় টিকিটের চড়া মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

টিকিটের চাহিদা আকাশ ছুঁয়েছে। কিন্তু আবহাওয়ার পূর্বাভাস কেমন? স্থানীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, রোববার সারা দিনই নিউ ইয়র্কে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সকাল ১১টা নাগাদ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ৫১ শতাংশ। বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৪৫-৫০ শতাংশ পর্যন্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হবে। অর্থাৎ, তার আধ ঘণ্টা পরই বৃষ্টির জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে খেলা বন্ধ রাখতে হতে পারে। কিন্তু একটানা বৃষ্টি হলে ম্যাচ পুরোপুরি ভেস্তে যাবে কি না, তা নিয়েও জল্পনা চলছে।

প্রথম ম্যাচের ব্যর্থতা ভুলে ভারতকে চমকে দেবে পাকিস্তান, না কি জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে শেষ আটে লড়াইয়ে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে ভারত, সেই প্রশ্নের উত্তরের জন্য আর কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.