ভয় পেলে ভয়, না পেলে কিছুই না : প্রধানমন্ত্রী

3
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সোমবার বিকেলে তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন। ছবি : সংগৃহীত

আফগানিস্তানে তালেবানের ক্ষমতা দখল প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ভয় পেলে ভয়, না পেলে কিছু না। আমরা দেখেছি একটা সময় আফগানিস্তানে আমাদের দেশের অনেক লোক ট্রেনিং নিতে গেছে, আবার অনেকে সম্পদও করেছে।

আজ সোমবার বিকেলে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

সদ্যসমাপ্ত নিউইয়র্ক সফর ও জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে যোগদান উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী এই সংবাদ সম্মেলন করেন। বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এই সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়। শেষ হয় সন্ধ্যা সোয়া ৬টায়।

জঙ্গিবাদ নিয়ে দেশের মানুষকে সচেতন করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি বলব মানুষকে সচেতন করতে হবে। সাংবাদিকরাই এ বিষয়ে সচেতন করবেন, কেউ ভয় দিলে ভয় পেয়ে বসবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, দেশে যখন যখন হায় হায় কোম্পানি তৈরি হয়, তখন আপনাদের সাংবাদিকদের অনেক কর্তব্য ও দায়িত্ব রয়েছে। টাকাগুলো যারা নিয়েছেন, তারা কোথায় পাচার করেছে? এগুলো তদন্ত হচ্ছে। এই যে দেখেন কোকোর টাকা, ফেরত আনা হয়েছে। মানুষের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে কিছু মানুষ টাকা বানানোর চেষ্টা করে, এগুলো আমরা খুঁজে বের করব। আমরা বসে নেই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইংল্যান্ডে বঙ্গবন্ধুর নাতনি ব্রিটিশ সংসদ সদস্য টিউলিপের ওপর হামলার ঘটনায় তারাই ব্যবস্থা নেবে। আমরা বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি। ইংল্যান্ডের মতো সভ্য দেশেও যুদ্ধাপরাধীরা এমন ঘটনা ঘটাতে পারে। কিছু লোক তো ওখানে বসে আছে, এটা দুঃখজনক। আমরা কিছু বলতে চাই না। ব্রিটিশ সরকার এই বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে যোগদান এবং বিভিন্ন উচ্চপর্যায়ের ইভেন্টে অংশগ্রহণের জন্য এক সরকারি সফরে গত ১৯ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অবস্থান করেন। পরে ২৫ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর তিনি ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থান শেষে ১ অক্টোবর দেশে ফেরেন।

গত ১৯ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নিউইয়র্কে অবস্থানকালে শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনের সাধারণ বিতর্কে বক্তব্য দেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পদাঙ্ক অনুসরণ করে বাংলায় ভাষণ দেন।

প্রধানমন্ত্রী সেখানে বেশ কয়েকটি উচ্চ পর্যায়ের ও রুদ্ধদ্বার বৈঠকে যোগ দেন এবং বিভিন্ন সরকার, রাষ্ট্র ও সংগঠনের প্রধানের সঙ্গে কয়েকটি দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসেন। তিনি ২০ সেপ্টেম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর সম্মানে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের নর্থ লনের ইউএন গার্ডেনে উৎসর্গকৃত একটি বেঞ্চ উদ্বোধন এবং একটি চারাগাছ রোপণ করেন।

x