মমতার হস্তক্ষেপে শুরু হলো সিরিয়ালের শুটিং

282

বিনোদন ডেস্ক : অবশেষে সরাসরি মুখ‌্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‌্যোপাধ‌্যায়ের হস্তক্ষেপে অচলাবস্থার অবসান ঘটলো টালিগঞ্জের শুটিং পাড়ায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুখ‌্যমন্ত্রীর কার্যালয় নবান্নতে এক বৈঠকের পর শুটিং শুরুর ঘোষণা দেন তিনি।

কলকাতা স্টার প্লাস, জি বাংলা, স্টার জলসাসহ বেশ কিছু বাংলা চ‌্যানেলে নিয়মিতভাবে সম্প্রচারিত মেগা সিরিয়ালগুলো বেশ দর্শকনন্দিত। অনেক সময় এসব সিরিয়ালের শুটিং চলে গভীর রাত পর্যন্ত। তবে সে তুলনায় বেতন-পাওনাদি সময় মতো পান বলে অভিযোগ তুলেছেন শিল্পীরা।

এছাড়াও আরো কিছু দাবি-দাওয়া তুলে একযোগে গত শনিবার (১৮ আগস্ট) থেকে ধর্মঘটে যান প্রায় সব চ‌্যানেলে সম্প্রচারিত মেগাসিরিয়ালগুলোর শিল্পীরা। এতে করে একরকম অচলাবস্থা শুরু হয়ে টালিগঞ্জে।

ধর্মঘটে নতুন স্লটের কাজ না আসায় পুরনো পর্বই প্রচার করতে হচ্ছে চ‌্যানেলগুলোকে। প্রায় সপ্তাহ পেড়িয়ে বৃহস্পতিবার প্রযোজক, কলাকুশলী, পরিচালক, অভিনেতা ও চিত্রনাট্যকারদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মুখ‌্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‌্যোপাধ‌্যায়।

মতবিরোধ থাকলেও বৈঠকে সব বিষয়ে ‘খোলামেলা আলোচনার’ পর ‘সব মিটে গেছে’ বলে জানান মুখ‌্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘শিল্পীরা যাতে প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে বেতন পেয়ে যান, সেই বিষয়টি অবশ্যই গুরুত্ব দিয়ে দেখা হবে। বাংলা সিরিয়াল বন্ধ হওয়া কোনোভাবেই কাম্য নয়। বহু মানুষ সিরিয়াল দেখে অবসর সময় কাটান। এমনকি আমি নিজেও সিরিয়ালের একজন দর্শক।’

ভবিষ‌্যতে যেন এ ধরনের সঙ্কট আর সৃষ্টি না হয় এজন‌্য একটি ‘জয়েন্ট কনসিলিয়েশন কমিটি’ করার কথা জানানো হয়েছে। কমিটিতে সব পক্ষের লোকজনকে রাখা হয়েছে। প্রতি মাসেই এই কমিটি বৈঠক করবে। কমিটির মুখ্য উপদেষ্টা হিসেবে রাখা হয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে। এছাড়াও আছেন প্রযোজক শ্রীকান্ত মোহতা, অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, পরিচালক অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়। কলাকুশলীদের পক্ষ থেকে আছেন স্বরূপ বিশ্বাস, আছেন চিত্রনাট্যকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ও। এছাড়া স্টার জলসা, জি বাংলা ও কালার্স সহ টেলিভিশন চ্যানেলগুলির প্রতিনিধিদেরও এই কমিটিতে রাখা হয়েছে।

বৈঠক শেষে সৌমিত্র সাংবাদিকদের জানান, ‘মুখ্যমন্ত্রীর পৌরোহিত্যে খুব সহজেই মিটে গিয়েছে সমস্যা। আপনারা এই বার্তাটুকুই পৌঁছে দিন। কার সঙ্গে কী ঝগড়া সেই সব লিখবেন না।’

ব্রেকিংনিউজ/

x