মাথা ঠিক থাকে না তাই প্রতিরাতেই স্ত্রীকে মারধর করতেন নোবেল

0 ২১১
স্ত্রীর সঙ্গে গায়ক মঈনুল আহসান নোবেল। ছবি : ফেসবুক থেকে

নোবেল অনেক ভালো মানুষ ছিল, একটা চক্রের ফাঁদে পড়ে সে নেশা শুরু করে এরপরই তার জীবন উল্টাপাল্টা হয়ে যায় বলে দাবি করছেন গায়কের সাবেক স্ত্রী সালসাবিল মাহমুদ।

অগ্রিম টাকা নিয়ে শোতে হাজির না হওয়াসহ একাধিক প্রতারণার অভিযোগে শনিবার (২০ মে) মঈনুল আহসান নোবেলকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পরে তাকে ডিবি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর কারাগারে পাঠানো হয়।

ডিবি কার্যালয়ে থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের সালসাবিল বলেন, ‘নোবেলের সঙ্গে যখন আমি সংসার শুরু করি তখন সে খুবই ভালো একজন মানুষ ছিলেন। হুট করে সে একটা চক্রের মধ্যে পড়ে নেশা শুরু করে। তখনই তার আচার-ব্যবহার পরিবর্তন আসে। ফলে অন্য এক নোবেলে পরিবর্তন হয় সে। এ যাবত যতো সমালোচিত কাজ নোবেল করেছে, তার সবই নেশাগ্রস্ত হওয়ার পর।’

নেশাগ্রস্ত হওয়ার পর নোবেল তার সাবেক স্ত্রীকে প্রতিরাতেই মারধর করত। এ কারণে গুলশান থানায় জিডিও করেন উল্লেখ করে গায়কের স্ত্রী বলেন, ‘নোবেলের নেশা গ্রহণের মাত্রা এতোটা বেড়ে যায় যে একটা সময় সে আমাকে প্রতি রাতেই মারধর করত। একদিন আমি ৯৯৯ এ ফোন দিলে পুলিশ এসেও আমাকে মারতে দেখেন। তারা নোবেল তখন জানতে চান আপনি মারছিলেন কেনো? নোবেল তাদের উত্তর দেয় আমার মাথা ঠিক থাকে না তাই আমি তাকে মারি।’

নোবেলকে নেশার জগৎ থেকে ফিরিয়ে আনার অনেক চেষ্টা করেছেন বলে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নোবেলের পরিবার ও আমার পরিবার মিলে বহুবার চেষ্টা করেছি নোবেলকে ঠিক পথে আনতে কিন্তু পারিনি।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.