মুশফিক-মিরাজের ব্যাটে এগোচ্ছে বাংলাদেশ

0 185

স্পোর্টস ডেস্ক: ১১৭ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। সেখান থেকে মুশফিক ও মিরাজ জুটি টেনে তোলার চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে এ জুটি ৬৯ বলে ৭৪ রান তুলেছে। মুশফিক তুলে নিয়েছেন এ সিরিজের টানা দ্বিতীয় ফিফটি।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শতরানের আগেই দৃষ্টিকটুভাবে আউট হয়েছেন দলের সেরা ৫ ব্যাটসম্যান। মোসাদ্দেক হোসেনও এসে চলে গেছেন ১১৭ রানে। তার আউটও ছিলো দৃষ্টিকটু।

এ যেন সেই আগের বাংলাদেশ ফিরে এসেছে। যখন ব্যাটিং বিপর্যয় কথাটা প্রতিটি ম্যাচেই শুনতে হতো। শ্রীলঙ্কা সফরের প্রথম ম্যাচেও বাংলাদেশকে দেখা গেছে সেই আগের বাংলাদেশ হিসেবে। বদলে দেয়া ক্রিকেটাররাই নিয়ে গেছে পূর্বের স্থানে। ২০১৫ সালের পর যে বাংলাদেশের উন্থান, সেটা শ্রীলঙ্কা সিরিজে আর নেই। ক্রিকেটাররা ভুলে গেছে তাদের শক্তিমত্তা। ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে নতুন বাংলাদেশের কারিগররা।

শুরুট সৌম্য সরকারকে দিয়ে। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে এলবির ফাঁদে পড়েন এ ওপেনার। নুয়ান প্রদীপের বলে বিদায় নেওয়ার আগে বাঁহাতি এই ওপেনার ১৩ বলে একটি বাউন্ডারিতে করেন ১১ রান। দলীয় ২৬ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

দলীয় ৩১ রানের মাথায় বিদায় নেন বদলে দেয়া বাংলাদেশের কারিগরদের একজন তামিম ইকবাল। টানা ছয় ম্যাচে বোল্ড হয়ে ফিরলেন এ ওপেনার। আউটটা ছিলো দৃষ্টিকটু। ইসুরু উদানার বলে বোল্ড হওয়ার আগে বাঁহাতি এই ওপেনার ৩১ বলে দুই বাউন্ডারিতে করেন ১৯ রান। প্রথম পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশ দুই ওপেনারকে হারিয়ে তোলে ৩৫ রান।

মুশফিকের সঙ্গে ২১ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন মোহাম্মদ মিঠুন। দলীয় ৫২ রানের মাথায় মিঠুনের বিদায়ে বাংলাদেশ তৃতীয় উইকেট হারায়। সাকিবের অনুপস্থিতিতে তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা এই ব্যাটসম্যান ফিরেছেন ২৩ বলে ১২ রান করে। আকিলা ধনাঞ্জয়ার বলে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন কুসল মেন্ডিসের হাতে।

দলীয় ৬৮ রানে ফিরলেন মাহমুদউল্লাহও। আকিলা ধনাঞ্জয়ার বলে ক্লিন বোল্ড হয়ে ফিরলেন এ তারকা। ফেরার আগে করেন ১৮ বলে ৬ রান। ব্যক্তিগত ৮ রান করে মুশফিক ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৬ হাজার রান স্পর্শ করেন।

গত ম্যাচে ফিফটি করা সাব্বির রহমান ফেরেন রান আউটে কাটা পড়ে। দলীয় ৮৮ রানে নিজের ভুলে সাজঘরে ফেরেন তরুণ এ ক্রিকেটার। তার ব্যাট থেকে আসে ১১ রান।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪৩.৩ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান। ‍ফিফটি করে উইকেটে আছেন মুশফিকুর রহিম (৬৭) এবং মেহেদী হাসান মিরাজ (৩৬)।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x