যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ নিহত : পুলিশপ্রধান ও গুলি ছোড়া পুলিশ কর্মকর্তার পদত্যাগ

0 243
যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটার মিনিয়াপোলিসে পুলিশের গুলিতে নিহত কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ দান্তে রাইটের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা। ছবি : সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের ব্রুকলিন সেন্টার শহরের মিনিয়াপোলিস এলাকায় পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ নিহতের ঘটনায় মঙ্গলবার পুলিশপ্রধান টিম গ্যানন ও গুলি ছোড়া নারী পুলিশ কর্মকর্তা কিম পটার (২৬) দুজনই পদত্যাগ করেছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ কথা জানিয়েছে।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

রোববার দিন ২০ বছর বয়সী কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ দান্তে রাইট পুলিশের গুলিতে নিহত হন। এ ঘটনার পর বিক্ষোভ-প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়লে দুই দিনের মাথায় পুলিশপ্রধান এবং গুলিবর্ষণকারী পুলিশ কর্মকর্তার পদত্যাগের ঘোষণা এল। দুই রাতের বিক্ষোভে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার তাঁরা পদত্যাগ করেন।

 

ব্রুকলিন সেন্টার শহরের মেয়র মাইক ইলিয়ট জানিয়েছেন, টিম গ্যানন ও কিম পটারকে বরখাস্তের আবেদন জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করেছিল সিটি কাউন্সিল। শেষমেষ তাঁদের পদত্যাগের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। অনেকে বলছেন, পদত্যাগ করার কারণে তাঁদের অন্যত্র আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চাকরিতে আবেদনের সুযোগ থাকবে।

 

গত রোববার বিকেলে দান্তে রাইট ট্রাফিক আইন অমান্য করার পর পুলিশ তাঁর গাড়ি থামায়। এ সময় পুলিশ জানতে পারে তাঁর নামে আগে একটি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি রয়েছে। যখন পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করতে চায় তিনি তখন আবার গাড়ির মধ্যে ঢুকে পড়েন। এ সময় পুলিশ তাঁর ওপর গুলি চালায়। এরপরও তিনি গাড়ি চালিয়ে কিছু দূর গিয়ে মারা যান।

 

অন্যদিকে, মিনিয়াপোলিসে জর্জ ফ্লয়েড হত্যা মামলার প্রধান আসামি পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক শভিনের বিচার গত দুসপ্তাহ ধরে চলছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, শভিন ৯ মিনিট ধরে ফ্লয়েডের ঘাড়ের ওপর হাঁটু চেপে বসেছিলেন। ঘটনাস্থলেই ফ্লয়েডের মৃত্যু হয়েছিল।

 

এ দৃশ্য দেখার পর বিশ্বজুড়ে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। শভিনের বিচার আরও এক মাস ধরে চলবে বলে ধারণা করা হচ্ছে এবং রায় ঘোষণার সময় গোলযোগ হতে পারে বলে পুলিশ কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x