রাজশাহীতে ওয়াটারএইডের উদ্যোগে রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

২৬৭

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি: রাজশাহীতে বিশ্ব পানি দিবস উদযাপন করা হয়েছে। ‘ভূগর্ভস্থ পানি: অদৃশ্যকে দৃশ্যমান করা’ এ প্রতিপাদ্য নিয়ে বিশ^ পানি দিবস উপলক্ষে ওয়াটারএইড বাংলাদেশের উদ্যোগে শহীদ নজমুল হক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিযোগিতার বিষয়বস্তু নিরাপদ পানি; সুস্থ জীবন।

সোমবার সকালে বিদ্যালয় মিলনায়তনে আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতা শেষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের পুরস্কার তুলে দেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের চীফ কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অফিসার আজিজুর রহমান।

ক্লাইমেট ব্রিজ ফান্ড (সিবিএফ), ওয়াটারএইড বাংলাদেশ ও ভিলেজ এডুকেশন রিসোর্স সেন্টার ভার্ক এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে বক্তারা জানান, রাজশাহীতে শুকনো মৌসুমে এ অঞ্চলে পানির স্তর নেমে যায়। অনেক এলাকার হস্তচালিত নলকূপ অকেজো হয়ে যায়। এ কস্ট লাঘবে গভীর নলকুপ স্থাপন, সাবমারসিবল পাম্পের সাহায্যে পানি উত্তোলনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সুপেয় পানির জন্য এই ব্যবস্থাপনা, কৃষির জন্য নয়। তবে বরেন্দ্র অঞ্চলে কৃষি জমিতে আবাদের জন্য এ ব্যবস্থাপনা গ্রহণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে পানির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিতকরণে শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়। অনুষ্ঠানে ভূগর্ভস্থ পানির সুরক্ষায় করণীয় বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

শহীদ নজমুল হক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্বাস উদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ওয়াটারএইড বাংলাদেশ জোনাল কোÑঅর্ডিনেটর মোঃ রেজাউল হুদা মিলন, সিটি কর্পোরেশনের সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা রকিবুল হক তুহিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ভার্কের কম্পোজিট অ্যাকশন ফর ক্লাইমেট মাইগ্রেন্ট ইন আরবান স্লাম প্রজেক্ট ম্যানেজার কামরুজ্জামান সরকার। বক্তব্য দেন সহকারী প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ।

প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান অর্জন করে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান রুপা, ২য় স্থান- নবম শ্রেণির মিফতাহুল জান্নাত, ৩য় স্থান-দশম শ্রেণির লাবিবা সরকার তুলি। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থীবৃন্দ ও প্রকল্পের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে অতিথিবৃন্দ সিবিএফ ও ওয়াটারএইড বাংলাদেশের অর্থায়ণে ও ভার্ক কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন শহীদ নজমুল হক উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে স্যানিটেশন কমপ্লেক্স নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন।

Comments are closed.