রাজশাহীতে পথ শিশু ভাতার নামে কোটি কোটি টাকা হাতানো প্রতারকদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

১৮৩

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীতে পথ শিশু ভাতা ৪০ হাজার টাকা দেয়ার কথা বলে ৩০টি ওয়ার্ডের হতদরিদ্র, অসহায় ও ভুমিহিন কয়েক হাজার মানুষের কাছে কোটি কোটি টাকা প্রতারণাকারীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগীরা। রোববার বেলা ১১টায় মহানগরীর মতিহার থানার তালাইমারী ট্রাফিক মোড়ে ঘন্টাব্যপি এই মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা। এ সময় শতাধিক ভুক্তভোগীরা মানববন্ধনে অংশ গ্রহন করেন।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী মতিহার থানার বাজে কাজলা এলাকার নারী লিলি, অরিফা, সাথি, আরতি, রানী, মুক্তি ও পাপিয়া বলেন, ২০১৯ সালের মে মাসে নারী মুক্তি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শাহানারা বেগম (বুলু), তার নিয়োগকৃত লোক মতিহার থানার মৃত হাসেমের ছেলে মোঃ শামীম হাসান অনতু, পাওয়ার হাউজপাড়া এলাকার মোস্তফার মেয়ে শম্পা, বর্ণা ও কাজলার জলি একাধিক স্থানীদের বাড়িতে যায়। ওই সময় তারা তাদের বলে ৬৫০০ টাকা দিলে ৩মাস পরে তিন কিস্তিতে পথ শিশু ভাতা দেয়া হবে ৪০ হাজার টাকা। তারা স্থানীয় ও পরিচিত হওয়ায় তাদের কথায় বিশ্বাস করে ৬,৫০০ টাকা হারে প্রদান করেন ভুক্তভোগীরা।

প্রায় তিন বছর হতে চলেছে তারা গ্রাহকদের কোন টাকা দেয় নাই। তাদের কাছে টাকা চাইতে গেলে বিভিন্ন রকম তালবাহানা আর মিথ্যা আশ্বাস দিচ্ছে। কখনো কখনো ক্ষিপ্ত হয়ে বলছে টাকা দেবো না যা পারিস করে নিস। তাদের এমন বক্তব্যে গত বৃহস্পতিবার (৭এপ্রিল) ৭০জন ভুক্তভোগীরা মতিহার থানায় পৃথক পৃথক অভিযোগ দায়ের করেন।

রাসিক ৩০ নং ওয়ার্ড বুধপাড়া এলাকার হাসি ও কাটাখালি মোহনপুর গ্রামের বাসিন্দা শিলা নামের দুই’জন ভুক্তভোগী নারী জানায়, ২০১৯ সালের মে মাসে শাহানারা বেগম বুলু’র লোক তানজিলা ও কামু তারা দুই ভাইবোন তাদের মাধ্যমে ১৭০ জনের মোট ১০লাখ ৫০ হাজার টাকা নেয় । কিন্তু তিন বছর হলো কোন টাকা দেয়নি।

গ্রহকরা তাদের বাড়িতে গিয়ে ঝামিলা করছে, পরিবারের লোকজনকে রাস্তায় ধরে হুমকি দিচ্ছে। সমস্যার কথা তানজিলা কামু ও হাসনারা বুলুকে বল্লে বিভিন্ন রকম তালবাহানা করছে। কখনো বলছে রোজার মধ্যেই টাকা দেবো। আবার কখনো ক্ষিপ্ত হয়ে বলছে টাকা দেবো না। যা পারিস করে নিস। কোন উপাই না দেখে শিলা ও হাসি বাদি হয়ে মহানগরীর রাজপাড়া থানায় শাহানারা বেগম বুলুর বিরুদ্ধে পৃথক দু’টি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তারা আরও বলেন, প্রতারকদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানার কার্যকর কোন পদক্ষেপ যাচ্ছে না। তাই তারা হতাশ হয়ে রোববার বেলা ১১টায় তালাইমারী ট্রফিক মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে তারা আরও বলেন, টাকা ফেরত ও প্রতারকদের গ্রেফতার ও শাস্তি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত এই কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন।

এ ব্যপারে আরএমপি পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক , রাসিক মেয়র এইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন করেছেন ভুক্তভোগীরা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী রিপোর্টার্স ইউনিটির (আরআরইউ) সভাপতি ও সাপ্তাহিক মুক্তভাবনা পত্রিকার সম্পাদক মোঃ আব্দুল মুগণী নিরো, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও দৈনিক বার্তা , খোলা কাগজ স্টাফ রিপোর্টার মাসুদ রানা রাব্বানী সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকবৃন্দ।

জানতে চাইলে রাজপাড়া থানার ওসি বলেন, থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই কাজলকে তদন্তভার দেয়া হয়েছে। এটা একটি লেনদি প্রসেস।

মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ আনোয়ার আলি তুহিন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে কোটে পাঠানো হবে। তবে বিষটি একটি লেনদি প্রসেস।

Comments are closed.