রাণীশংকৈলে থানা পুলিশের এস আই আজগর ক্লোজ

799

Thakurgaআনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল : ঠাকুরগাওয়ের রাণীশংকৈল থানার এস আই আজগর আলীকে পুলিশি আইন বহির্ভূত কার্যকলাপের অপরাাধে তাকে ক্লোজড করা হয়েছে। এ এসআই এর বিরুদ্ধে শুক্রবার সন্ধ্যায় মা মেয়েকে প্রকাশ্য মারধর করার অভিযোগ উঠে। ঘটনাটি থানার প্রধান ফটকের সামনে ঘটে। প্রত্যক্ষদশীরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানাই দারোগার এমন ব্যবহার আগে পেপার,টেলিভিশনে দেখেছি শুনেছি এবার স্ব চোখে দেখলাম দারোগার ক্ষমতার অপব্যবহারের মাস্তানি জানিনা নির্যাতিত পরিবারটি সঠিক বিচার পাবে কিনা। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বসতপুর(বিরাশি) গ্রামের আবুল কাশেম(৫০) তার স্ত্রী হোসনেয়ারা(৪৫),বিবাহিত কন্যা পারভীন(২৫)সহ থানার সামনে অবস্থিত একটি খাদ্য বিপনী হোটেলের দোকানের মালিকের সাথে সামান্যে কথাকাটি হচ্ছছিলো। ইতোমধ্যে ঘটনা স্থলে সাধারণ পোশাকে দারোগা আজগর আলী আসেন। তিনি এসেই কিছু বুঝে উঠার আগেই আবুল কাশেমকে ধমকাধমকি করে তার শাটের কলার ধরে এসআই আজগর থানায় নিয়ে যেতে উদ্যত হয়। সদ্য হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পাওয়া স্ত্রী হোসনেয়ারা তার স্বামীকে কেনো নিয়ে যাচ্ছেন জানেত চেয়ে দারোগাকে টেনে ধরে। এসআই আজগর হোসনেয়ারার উপর চড়াও হয়ে কিলঘুষি লাথিসহ বেদড়ক মারিপট করেন। মেয়ে পারভীন মাকে বাচাতে গেলে তাকেও বেদড়ক মাপিট করা হয়। উপস্থিত লোকজন এই অসহায় লোকদের দারোগার হাত থেকে ছাড়িয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এসআই আজগর আবারও বিনা অভিযোগে বা অপরাধে হাসপাতালেও আবুল কাশেমকে আটক করার জন্য যায়। তবে এলাকার লোকের তোপের মুখে আটক করতে পারে নি। এলাকার সচেতন মহল পুলিশ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা ও নিরপক্ষ তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানায়। এ বিষয়ে ঠাকুরগাও সার্কেল এসপি আবুল কালাম আজাদ তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থল তদন্তে আসেন। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থার আশ্বাস দিয়ে তাকে রাণীশংকৈল থানা থেকে ক্লোজড করা হয়। শনিবার সন্ধ্যায় এসআই আজগর ঠাকুরগাও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অবস্থান করে।

x