রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যের আনুষ্ঠানিকতা

৭৯
লন্ডনের ওয়েস্ট মিনস্টার অ্যাবেতে ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ মর্যাদায় প্রয়াত ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যের অনুষ্ঠান। ছবি : রয়টার্স

লন্ডনের ওয়েস্ট মিনস্টার অ্যাবেতে ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ মর্যাদায় প্রয়াত ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যের অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। ক্যান্টারব্যুরির আর্চবিশপ জাস্টিন ওয়েলবি রানির শেষকৃত্যের ভাষণ দেন। এর আগে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাসও রানিকে বিদায় জানিয়ে বাইবেলের স্তাবক পাঠ করেন।

যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় (বাংলাদেশ সময় সোমবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টা) রানিকে চিরবিদায় জানানোর কথা রয়েছে।

যে হলে রানির মুকুট পরেছিলেন সেখানেই শেষকৃত্যের অনুষ্ঠান চলছে। এমনকি এখানেই হয়েছিল দ্বিতীয় এলিজাবেথের বিয়ের আয়োজন।

ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি ওয়েস্ট মিনস্টার অ্যাবেতে রানির শেষকৃত্যের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ অন্যান্য বিশ্বনেতারা। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এতে সশরীরে যোগ দিয়েছেন। এ ছাড়া যোগ দিয়েছেন বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশের রাজপরিবারের সদস্যেরা।

লন্ডনের ওয়েস্ট মিনস্টার হলে কয়েকদিন ধরে শায়িত থাকার পর আজ সোমবার স্থানীয় সময় ভোর থেকে রানিকে চিরবিদায় দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়।

দীর্ঘ সাত দশক তিনি ব্রিটেনের রানির সিংহাসনে অধিষ্ঠিত ছিলেন। নানা আনুষ্ঠানিকতার পর আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে রানির রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া। সারা বিশ্বের নেতারা অংশ নিয়েছেন তাঁর শেষকৃত্যানুষ্ঠানে। সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উইন্ডসর ক্যাসেলের ভেতরে সেন্ট জর্জ চ্যাপেলে রানিকে সমাহিত করা হবে।

উইন্ডসর ক্যাসেল ছিল রানির খুবই পছন্দের একটি জায়গা। রানির প্রিয় এ জায়গাটি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। বার্তা সংস্থাটি জানায়, উইন্ডসর ক্যাসেল হচ্ছে ব্রিটিশ রাজা-রানিদের অবকাশযাপনের জায়গা। অন্তত ১২ জনেরও বেশির ভাগ রাজা-রানি এখানে অবকাশযাপন করেছেন। এ ছাড়া বেশির রাজা-রানিকে সেন্ট জর্জ চ্যাপেলে সমাহিত করা হয়েছে।

Comments are closed.