রাস্তা মেরামত করতে কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা, ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসী

3

শ্রীলঙ্কার হিগুড়কগোদা এলাকার জরাজীর্ণ প্রধান সড়কের কারণে কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দাদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এই গ্রামের লোকেরা তাদের চাকরি বা অন্য কোনও উদ্দেশ্যে শহরে ভ্রমণ করার সময় অসুবিধার সম্মুখীন হয় এবং বর্ষাকালে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়। সূত্র: A24 News Agency

বাজে সড়কের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এলাকার স্কুলের ছেলেমেয়েরা এবং গ্রামবাসীদের মতে তাদের মধ্যে কেউ কেউ স্কুলেও যায় না। রাজনৈতিক প্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের জানানো সত্ত্বেও তারা কেউই সমস্যার সমাধান দেননি। গ্রামবাসীদের মতে, রাস্তা নির্মাণ নিয়ে রাজনীতিবিদদের দুই দলের মধ্যে বিরোধ চলছে। গত কয়েক বছরে প্রায় পাঁচবার এ নির্মাণকাজ শুরু হলেও এখনো শেষ করতে পারেনি ঠিকাদাররা।

ভোক্তা অধিকার ফোরাম পোলোনারুয়া, নালাকা পুষ্পকুমারা জানান, “ঠিকাদারদের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের ব্যবস্থা করা হলেও, দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেক নির্মাণের কারণে তারা তা দ্রুত ব্যয় করে ফেলে। তখন এই সড়ক নির্মাণ অর্ধেকে থেমে যায়। ফলে কাজ বিলম্বিত হয়।“

এছাড়া, গ্রাম সমিতির প্রধান নয়না রাসাদারি জানান, “গত নির্বাচনের মৌসুমে এই কাজ শুরু হয়েছে। আড়াই বছর হয়ে গেছে। সাবেক সরকারের একজন সদস্য এই নির্মাণে বাধা দিচ্ছেন। আমরা কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ করছি এই সড়ক নির্মাণের বাধার সমাধানের জন্য।“

গ্রামের অধিবাসী জনৈক সিসিরা কাহাদাওয়ালা এ কাজ তাড়াতাড়ি শেষ করতে তাড়া দিয়েছেন, “প্রায় ৫-৬ বার এই রাস্তার নির্মাণ অর্ধেকে এসে থেমে গেছে। আজ পর্যন্ত কাজ শেষ হয়নি। যেভাবেই হোক, শীঘ্রই এই নির্মাণকাজ শেষ করুন।“ এদিকে, গ্রামবাসীরা বলছেন, এখন পর্যন্ত যেসব রাস্তা নির্মাণ শেষ হয়েছে সেগুলো মানহীন।

সেসব নির্মাণের কিছু অংশ ইতোমধ্যে ভেঙে পড়েছে। গ্রাম সমিতির প্রধান রাসাদারি আরও জানান, এটি দুর্বল নির্মাণের একটি চমৎকার উদাহরণ। এই কংক্রিটের ড্রেনগুলি সঠিকভাবে লোহা ব্যবহার না করে তৈরি করা হয়েছে। যে কারণে এই অংশটি ভেঙে গেছে কারন এতে ছোট লোহা ব্যবহার করা হয়েছে।

তারা জানান, ভাল ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় পানির প্রবাহ সৃষ্টি হচ্ছে না ফলে জমে যাওয়া পানি থেকে ডেঙ্গু মশা ছড়াচ্ছে এবং বর্তমানে গ্রামের কয়েকজন এ রোগে আক্রান্ত। গ্রাম ইউনিয়নের ইন্দ্রাণী গুণবর্ধন বলেন, “পানি প্রবাহের জন্য ড্রেন নির্মাণ যথাযথভাবে করা হয়নি। এসব ড্রেন থেকে ডেঙ্গু মশা ছড়াচ্ছে।“

গ্রামবাসীরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন কারণ তাদের অনুরোধ বছরের পর বছর ধরে উপেক্ষা করা হচ্ছে যেখানে মহাসড়ক সহ অন্যান্য প্রধান সড়ক ঠিকই নির্মাণ করা হয়েছে।

x