লক ডাউনে বিরক্ত! সঙ্গীর সঙ্গে কাটান স্পেশাল উইকেন্ড

এখন তাদের প্রায় সেই ঝগড়া হয় আর দুজনে অভিমান করে বসে থাকে ফোনের দিকে তাকিয়ে

324

সবে সম্পর্ক শুরু হয়েছিল প্রিয়ম আর রূপসার। তিন মাস যেতে না যেতেই হয়ে গেল লকডাউন। নেই দেখা-সাক্ষাৎ। তাই প্রথম ডেটিংয়ের দিনগুলি (dating) এখন বেশ মিস করছে প্রিয়ম আর রূপসা। কিন্তু লকডাউন এর মধ্যে বাড়ি থেকে কাজ করা এবং দুজনেই একা থাকার দরুন সমস্ত বাড়ির কাজ নিজেদের হাতে সামলানোর ফলে তাদের মানসিক চাপ বাড়তে লাগলো। এর প্রভাব পরল দুজনের সম্পর্কের উপর(mental stress) ।

তাই এখন তাদের প্রায় সেই ঝগড়া হয় আর দুজনে অভিমান করে বসে থাকে ফোনের দিকে তাকিয়ে। কিন্তু এই লকডাউনেও প্রিয়ম আর রূপসার মতোই আপনাদের প্রেমের সম্পর্কগুলিকেও আরো মধুর করার রয়েছে কিছু উপায়।

 

১. সম্পর্ক তৈরি করা যতটা সহজ তা ভেঙে ফেলা কিন্তু তার থেকেও সোজা। তাই দুজনের মাঝখানে কোনো মনোমালিন্যকে স্থান দেবেন না। একসঙ্গে থাকলে বা সম্পর্কে থাকলে ঝগড়া হতেই পারে। কিন্তু তার মানে এটা নয় যে চট করে অন্য কিছু ভাবতে বসলেন।

তাই সব সমস্যা মিটিয়ে নিয়ে মন খুলে কথা বলুন।

 

২. দুজনেই ভার্চুয়াল কফি ডেট করতেই (virtual date) পারেন। সুন্দরভাবে সেজে গুজে সেই প্রেমের আবেশে দুজনে একসাথে নিজেদের ঘরে গল্প করতে করতে ফিরে যান দুজনের একসঙ্গে কাটানো সময়গুলোর স্মৃতিরোমন্থনে। হাতে কফি আর ব্যাকগ্রাউন্ডে মৃদু গানের শুরে ভেসে যান দুজনেই (virtual date)।

৩. দূর থেকেও দুজনেই একে অপরের সঙ্গে রয়েছেন এবং কাছে রয়েছেন তা বোঝাতে মাঝে মাঝে দুজন দুজনকে কিছু টুকটাক প্রয়োজনীয় জিনিস গিফট (surprise gift) হিসেবে পাঠাতেই পারেন। তবে আগেভাগে কেউ কাউকেই তা জানিয়ে রাখবেন না।

একরকম সারপ্রাইজ দিলে (surprise gift) আরো বেশি জমে উঠবে প্রেম।

 

৪. এখন চিঠি লেখার চল তো হারিয়েই গেছে (letter writting)। তাই চাইলে সপ্তাহের শেষে নিজের সারা সপ্তাহের মনের কথা জমিয়ে রেখে তারপর তা সঙ্গীকে জানিয়ে ফেলুন চিঠির মাধ্যমে।

 

এতে তিনিও অবাক হবেন। আবার তিনি উৎসাহ পাবেন নিজের কথাগুলি আপনাকে ইউনিক স্টাইলে জানাতে (letter writting)।

 

x