শরীরের দুর্গন্ধ কমানোর ঘরোয়া উপায়

0 309

কম বেশি সবার শরীর থেকেই দুর্গন্ধ বের হয়। এটা মানবজীবনের একটা অংশ হলেও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়ে। শরীরের দুর্গন্ধের জন্য অনেকেই ঘামকে দোষারোপ করেন। কিন্তু ঘামের কোনও গন্ধ নেই। শরীরের ঘর্মাক্ত অংশে বসবাসরত ব্যাকটেরিয়ার কারণে শরীর থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। এছাড়া কোন ঘর্মগ্রন্থি থেকে কি পরিমান ঘাম বের হচ্ছে সেটার ওপরও শরীরিক দুর্গন্ধ নির্ভর করছে। আর এ দুর্গন্ধ কমাতে চান সবাই। তাই এ পর্বে কিভাবে শরীরের দুর্গন্ধ কমানো যায় তার কিছু উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হল।

প্রতিদিন গোসল করুন
শরীরের দুর্গন্ধ কমাতে হলে প্রতিদিন গোসলের বিকল্প নেই। গোসলের সময় শরীরে দুর্গন্ধপ্রবণ স্থানগুলো ফেনায়িত করুন। এছাড়া ভেজা কাপড় দিয়ে বগল, কুঁচকি ও ত্বকের ভাঁজ মুছে নিলেও দুর্গন্ধ কমবে।

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার
অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার করে নিয়মিত গোসল করলে শরীরে দুর্গন্ধ কমে আসবে।

বগলের সঠিক প্রোডাক্ট ব্যবহার করা
বগুলের উপযুক্ত প্রোডাক্ট ব্যবহার করলে দুর্গন্ধ কমে যাবে। ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করলে বগলের পরিবেশ ব্যাকটেরিয়ার জন্য প্রতিকূল হতে পারে। কেননা বগলের সুবাস দিয়ে দুর্গন্ধ ঢেকে রাখে এই প্রোডাক্ট। শরীর বেশি ঘামলে এমন প্রোডাক্ট কিনুন যার লেবেলে অ্যান্টিপারস্পিরেন্ট ও ডিওডোরেন্ট উভয় রয়েছে। আর যদি ঘামে তেমন বের না হয়, তাহলে ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করতে পারেন।

ব্রিদেবল ফ্রেব্রিকস পরুন
শরীরে দুর্গন্ধ কমাতে বাতাস চলাচল করতে পারে এমন পোশাক পরুন। বিশেষ করে পলিয়েস্টার, নাইলন ও রেয়নের তুলনায় কটনের মতো ন্যাচরাল ফ্রেব্রিকস ভালো। আর ত্বকে ঘাম ধরে রেখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে সেসব পোশাক পরিহান করুন।

ডায়েটে পরিবর্তন আনুন
ডায়েট থেকে মসলাদার খাবার অথবা কড়া স্বাদের খাবার বাদ দিয় দেখতে পারেন। যারা কড়া গন্ধের খাবার খেয়েছেন তাদের শরীরে দুর্গন্ধ বেশি বলে এক গবেষণায় দেখা গেছে।

লোম পরিস্কার করুন
শরীরে যেসব স্থানে লোক বেশি সেখানেই লোমগুলো ঘাম ধরে রাখে ও ব্যাকটেরিয়া বসবাসের জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরি করে। তাই নিয়মিত লোক কেটে শরীরের দুর্গন্ধ নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

 

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.