শাকিব-অপু জুটির ঈদে শেষ হচ্ছে ছবি।

553

আলমগীর,বিনোদন :
‘আমার সাথের অনেকেই শাকিব খান ও অপু বিশ্বসকে নিয়ে ছবি শুরু করেছিলো, কিন্তু শেষ করতে পারেননি। অপু বিশ্বাস যখন নিখোঁজ হন তখন আমার ছবির নব্বই শতাংশ শেষ। এমন কি শাকিব-অপু দুজনেরই ডাবিং পর্যন্ত করা হয়ে গিয়েছিল। অপুর দুই দিনের কাজ বাকি ছিলো, ফিরে এসে তিনি সেই দুই দিন কাজ করে দিয়েছেন। আমরা অনেক খুশি কারণ ছবিটি আমরা ঈদে মুক্তি দিতে পারছি। আমার জানা মতে এটাই হবে শাকিব-অপুর সর্বশেষ ছবি। যদি তারা আবার একসাথে ছবি না করে আরকি। আরও দুই তিনটি ছবির কাজ তাঁরা করেছেন। কোনটা ৪০ শতাংশ, কোনটা ৩০ শতাংশ শেষ হয়েছিল। সেই ছবিগুলো মনে হয় না আর নতুন করে শুটিং শুরু করবে।’ কথাগুলো বলছিলেন ‘পাংকু জামাই’ ছবির পরিচালক আব্দুল মান্নান।
‘পাংকু জামাই’ ছবির প্রযোজক মোজাম্মেল হক বলেন, ‘দীর্ঘদিন অপেক্ষায় থাকার পর ছবিটি রিলিজ করছি। ঈদের মতো বড় কোন উৎসবের অপেক্ষায় ছিলাম। আমরা গতকাল ছবির টিজার ছেড়েছি। সবাই অনেক প্রশংসা করছেন। আশা করি ঈদে শাকিব-অপুর দর্শকরা ছবিটি উৎসাহ নিয়ে দেখবেন।’ তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের জনপ্রিয় জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। তারা এ পর্যন্ত সত্তরটারও বেশি সিনেমায় জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন, সেগুলোর প্রায় প্রতিটি ছবিই সুপার হিট। আমরা আশা করবো শাকিব অপুর শেষ ছবিটিও হিট হবে ইনশাল্লাহ্।’
২০১৬ সালে ছবির শুটিং চলাকালে হঠাৎই ‘নিখোঁজ’ হন অপু বিশ্বাস। তারপর বন্ধ হয়ে যায় ‘পাংকু জামাই’ ছবির কাজ। দেড় বছর পর আবার তিনি ফিরে আসেন ছেলে জয়কে নিয়ে। অবশ্য পরে ‘পাংকু জামাই’ ছবির শুটিং শেষ করে দেন তিনি। এই ছবিতে শাকিব খান, অপু বিশ্বাস ছাড়াও অভিনয় করেছিলেন পুষ্পিতা পপি, এ টি এম শামসুজ্জামান।
এছাড়া শাকিব-অপু জুটির ‘মাই ডারলিং’ ছবির ৪০ শতাংশ শুটিং হয়। ‘ভালোবাসা ২০১৪’ ও ‘মা’ শিরোনামে দুটি ছবি শুরু হলেও পরে তা আর বেশিদূর গড়ায়নি।

x