শুরুটা ভালো হলো না বাংলাদেশের

4
বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের লড়াই। ছবি : সংগৃহীত

বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হলো না বাংলাদেশের। দুই ওপেনার লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈমের ব্যাটে মন্থরগতিতে শুরু হয় স্বাগতিকদের। এর পর পঞ্চম ওভারে হতাশ করে ফিরে যান লিটন দাস। ধারাবাহিক ব্যর্থ হওয়া লিটন ১২ বলে ১০ রান করে ফেরেন। দলীয় ২৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় লাল-সবুজের দল।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ তিন উইকেটে ৩৯ রান।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬১ রান করে নিউজিল্যান্ড। দলটির হয়ে সর্বোচ্চ ৫০ রান করেন অধিনায়ক টম ল্যাথাম। গত ১০ ম্যাচে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এটিই সর্বোচ্চ সংগ্রহ।

সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতেও টস ভাগ্য ছিল কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথামের পক্ষে। আগের চার ম্যাচেই ব্যর্থ ছিল নিউজিল্যান্ডের ওপেনিং জুটি। গত ম্যাচগুলোতে শুরুর জুটিতে যথাক্রমে ১, ১৬, ১৬, ০ রান পেয়েছিল কিউইরা।

সেই নিউজিল্যান্ডই আজ পেয়েছে দারুণ সূচনা। ইনিংসে প্রথম পাঁচ ওভারেই দলীয় স্কোর পঞ্চাশ ছাড়ায় নিউজিল্যান্ড। তবে নিউজিল্যান্ডের শুরুর ছন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেননি শরিফুল ইসলাম। ষষ্ঠ ওভারে বল হাতে এসেই জোড়া উইকেট তুলে নেন তিনি।

সে ওভারে রাচিন রবীন্দ্রকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন শরিফুল। তরুণ এই পেসারের বলে পুল শট খেলতে চেয়েছেন রবীন্দ্র। কিন্তু টাইমিং ঠিক হয়নি। ব্যাটের ওপরের দিকে লেগে বল যায় মিড অফে। সেখান থাকা মুশফিকুর রহিম ঝাঁপিয়ে পড়ে ক্যাচ লুফে নেন। ১২ বলে ১৭ রান করে ফেরেন রবীন্দ্র।

একই ওভারে ফিন অ্যালানকেও বিদায় করেন শরিফুল। রিভিউতে বেঁচে যাওয়া অ্যালানকে বোল্ড করেন শরিফুল। পাওয়ার প্লের শেষ বলে আউট হয়ে ২৪ বলে ৪১ রান করে ফেরেন অ্যালান। দলীয় ৫৮ রানেই জোড়া উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড।

মিডল অর্ডারে নামা দুই কিউই ব্যাটসম্যান উইল ইয়ং ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকে স্থায়ী হতে দেননি আফিফ হোসেন ও নাসুম আহমেদ। চলতি সিরিজে প্রথমবার বল হাতে এসেই ইয়ংকে নিজের শিকার বানান আফিফ। রাউন্ড দ্য উইকেটে গিয়ে বল করে ইয়ংকে ফেরান তিনি। ছয় রানে সাজঘরে ফেরেন ইয়ং।

১১তম ওভারে হাতখুলে খেলার আগেই দি গ্র্যান্ডহোমকে থামান নাসুম। তরুণ এই স্পিনারের মিডল স্টামে পিচ করা ফুল লেংথের বলে ছক্কা হাঁকাতে চেয়েছেন গ্র্যান্ডহোম। বল চলে যায় লং অফে। সেখানে দৌড়ে গিয়ে ক্যাচ মুঠোয় জমান শামীম হোসেন। ৯ রানে থামেন দি গ্র্যান্ডহোম।

দারুণ শুরুর পর দ্রুত চার উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। হেনরি নিকোলসকে নিয়ে সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করেন অধিনায়ক টম ল্যাথাম। উইকেট হারানোর চাপ সামলে হাত খুলে খেলেন অধিনায়ক। ল্যাথামের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত ১৬১ রান গড়ে নিউজিল্যান্ড।

x