শেষ দিনটা খুব কঠিন হবে, বলছেন লিটন

১৩০
দলের সঙ্গে লিটন দাস। ছবি : সংগৃহীত

দুটি ক্যাচ, সঙ্গে রান আউটের সহজ সুযোগ হাতছাড়া। একপর্যায়ে মনেই হয়েছিল, ম্যাচের লাগাম আজই টেনে ধরতে পারে নিউজিল্যান্ড। কিন্তু, সেটা হতে দেননি ইবাদত হোসেন। শেষ সেশনে তাঁর বোলিংয়ে পাল্টে গেছে দৃশ্যপট।

নামে মাত্র ১৭ রানের লিড নিয়ে আজ মঙ্গলবার চতুর্থ দিন শেষ করতে পেরেছে নিউজিল্যান্ড। ফলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ এখন বাংলাদেশের কাছেই। কিন্তু, বাইশ গজে অনেক কিছুই হতে পারে। সবমিলিয়ে লে ওভালে কাল তুমুল লড়াইয়ের অপেক্ষায় বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড।

কিন্তু, এ লড়াইটা সহজ হবে বলে মনে করছেন না বাংলাদেশ দলের অন্যতম সদস্য লিটন দাস। তবুও নিজেদের মাথা ঠান্ডা রেখে ঠিক লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়ার কথা শোনালেন ডানহাতি এ ওপেনার।

চতুর্থ দিন শেষে সংবাদ মাধ্যমে লিটন বলেন, ‘কাল নতুন দিন। কাল উইকেটটা অতটা সহজ হবে বলে আমার মনে হচ্ছে না। কারণ যত দিন যাচ্ছে, উইকেটের কিছু না কিছু কাজ করছে। আমাদের চেষ্টা থাকবে, যত কমে তাদের অলআউট করে দেয়া যায় এবং সে রানটা চেইজ করা যায়। কারণ, যত কম দেব, ওই রানটা আমাদের চেইজ করতে হবে। খুব একটা সহজ হবে আমাদের ইনিংসটা সেটিও কিন্তু নয়। আমাদের অনেক পরিশ্রম করে ব্যাটিং হবে। আমরা অনেক কুল অ্যান্ড কাম আছি। আমাদের জিততেই হবে এমন কথা নেই। আমরা একটা প্রসেসের ভেতর দিয়ে যাচ্ছি। এতক্ষণ সে প্রসেসটা ধরে রেখে সফল হয়েছি, সামনেও হব বলে আশা করছি।’

ইবাদতের বোলিংয়ের প্রশংসা করে লিটন বলেন, ‘আমাদের যত জন বোলার বল করেছেন, সবাই একই লেন্থে করেছেন। আমাদের যে পরিকল্পনা ছিল, সে অনুযায়ী বল করেছেন। ইবাদত আজ দুর্দান্ত ছিল। ওর দুটো স্পেলই চমৎকার ছিল। আমার মনে হয়, সে একই জায়গায় বল করার কারণে অনেক হেল্প পেয়েছে। তার ব্রেক থ্রু আমাদের দলকে অনেক বুস্ট-আপ করেছে। আমরা এখন যে অবস্থায় আছি, আমরা ওভার এক্সাইটেড নই, আমাদের এখনও পাঁচ উইকেট নিতে হবে, যত কম রান দেওয়া যায়, এ রানটা আমাদের চেইজ করতে হবে।’

আজ টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে ৫ উইকেটে ১৪৭ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে নিউজিল্যান্ড। দিন শেষে উইকেটে ৩৭ রানে অপরাজিত আছেন রস টেইলর। তাঁর সঙ্গে ৬ রানে ছিলেন রাচিন রবীন্দ্র। আজ শেষ সেশন পর্যন্ত ১৭ রানে এগিয়ে আছে টম ল্যাথামের দল।

লে ওভালে আজ চতুর্থ দিন সকালে ৪৫৮ রানে থেমেছে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। নিউজিল্যান্ডের ইনিংস টপকে বাংলাদেশ লিড নিতে পেরেছে ১৩০ রানের। এ রানই শেষ সেশনে টপকে গেছে টম ল্যাথামের নিউজিল্যান্ড।

Comments are closed.