সকলের পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে মহানগরীকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চাই- রাসিক মেয়র

0 105

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। রবিবার দুপুরে প্রতিষ্ঠানটির মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন মেয়র। এ সময় মেয়রকে রাজশাহী সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের পক্ষ থেকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

 

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, রাজশাহীকে আরো উন্নত, আধুনিক ও বাসযোগ্য মহানগরীতে পরিণত করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী সহ সকলের পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে এই মহানগরীকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চাই।

 

মেয়র আরো বলেন, শুধু ফলাফলে শিক্ষার মূল্যায়ন নয়, বরং শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশ, তাদের চিন্তার ভাবনার গভীরতা বিকাশ ঘটায় যে শিক্ষা, সেই শিক্ষাই প্রকৃত শিক্ষা। শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষায়ও শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে, তাদের মেধাবী শিক্ষার্থী হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। দেশের বিশ^বিদ্যালয়গুলোতে গবেষণা কার্যক্রম বৃদ্ধি করতে হবে।

 

তিনি আরো বলেন, শিক্ষানগরী রাজশাহীতে আরো বিশেষায়িত ভালো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করতে চাই। রাজশাহী মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের কাজ চলছে, আরো নতুন দুইটি সরকারি স্কুল প্রতিষ্ঠা হচ্ছে। সম্প্রতি হলি ক্রস কলেজের রাজশাহী শাখার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছি। সেন্ট জোসেজ ও নটরডেম কলেজের শাখা রাজশাহীতে আনার জন্য সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানিয়েছি।

 

রাসিক মেয়র বলেন, শুধু শিক্ষা নিয়ে আমরা বেঁচে থাকতে চাই না। রাজশাহীতে শিল্পায়নের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ইতোমধ্যে বিসিক শিল্পনগরী-২ এর কাজ শুরু হয়েছে। চামড়া শিল্প পার্কের জমিও দেখা হয়েছে। বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্যও অনুমোদন পাওয়া গেছে। রাজশাহীতে বিনিয়োগকারীদের আনার চেষ্টা চলছে।

 

মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীর ভবিষ্যৎ ঠিক রাখতে টেকসই উন্নয়নের পরিকল্পন গ্রহণ করা হচ্ছে। পদ্মানদীতে ক্যাপিটাল ড্রেজিং করে নাব্যতা ফিরিয়ে এনে রাজশাহীতে আন্তর্জাতিক নৌবন্দর প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা চলছে। নৌবন্দর প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হলে ভারত থেকে মালামাল আমদানি-রপ্তানি করা সম্ভব হবে, রাজশাহীর ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারিত হবে। অর্থনীতিতে গতিশীলতা বৃদ্ধি পাবে। হযরত শাহ মখদুম বিমানবন্দরের উন্নয়নে একটি প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। আগামীতে আরো একটি প্রকল্প গ্রহীত হবে, যেই প্রকল্পে বর্তমানের চেয়ে দিগুন রানওয়ে নির্মিত হবে।

 

পদ্মাপাড়ের উন্নয়নের বিষয়ে রাসিক মেয়র বলেন, আই বাঁধ থেকে বড়কুঠি হয়ে মিজানের মোড় পর্যন্ত প্রায় ১২ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য পদ্মা নদীর ধারের ভূমি উন্নয়ন করে অবকাঠামো, আবাসিক ভবন, বিনোদনকেন্দ্র গড়ে তোলার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এটি হয়তো এই মুহুূর্তেই করা সম্ভব না, কিন্তু আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা নিয়েই আমরা সকল পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে সর্বক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন করছেন। রাজশাহীর উন্নয়নে ইতোমধ্যে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন পেয়েছি। আরো নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে।

 

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আকবর হোসেন। বক্তব্য দেন রাজশাহী কলেজের সদ্য বিদায়ী অধ্যক্ষ প্রফেসর মুহা. হবিবুর রহমান ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ডাবলু সরকার।

 

এ সময় রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সচিব ড. মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর হবিবুর রহমান, রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ, শহীদ মামুন মাহমুদ পুলিশ লাইনস্ স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. গোলাম মাওলা, শহীদ বুদ্ধিজীবী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ড. মো. আনারুল ইসলাম, রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড মডেল স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর তাইফুর রহমান, শহীদ কামারুজ্জামান কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক সহ রাজশাহী সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x