সব আঘাত সব সমালোচনা মাথা পেতে নেবো: কুতিনহো

0 244

খেলাধুলা অনলাইন ডেস্ক : ফুটবলপাগল ব্রাজিলের মানুষ তো ফাইনালে রানার্স আপ হওয়াকেও ব্রাজিলের ব্যর্থতা মনে করে। অথচ গত ৪টি বিশ্বকাপে বলা যায় নতজানু হয়েই বিদায় নিয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ব্রাজিলের খেলায় আধিপত্য কতটুকু ছিল তা বিশ্ব দেখেছে।

২০০২ সালে পঞ্চম শিরোপা জয়ের পর হেক্সা মিশন ব্যর্থ হয়েছে ২০০৬, ২০১০, ২০১৪ ও সবশেষ ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপেও। কিন্তু কেন এমন নতি স্বীকার। তবে কি ইউরোপের হাতেই বিশ্ব ফুটবলের রাজত্ব পাকাপোক্ত হচ্ছে?

শুক্রবার রাতে কাজানে বেলজিয়ামের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ব্রাজিলের বিদায় এমন সংশয়কে আরও চাঙ্গা করে তুলেছে। একই দিন লাতিনের আরেক পরাশক্তি উরুগুয়েও ফ্রান্সের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছে। লাতিনের শেষ ভরসা এই দুটি দলের বিদায়ের পর একটি বিষয় নিশ্চিত হয়ে গেছে- রাশিয়া বিশ্বকাপের সোনার ট্রফিটাও উঠতে যাচ্ছে কোনও ইউরোপিয়ান দেশের হাতে।

বার্সেলোনার ব্রাজিল তারকা কুতিনহো গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই ম্যাচে দারুণ দুই গোল করেন। এরপর তৃতীয় ম্যাচে গোলে সহায়তা করেন। কিন্তু নক আউট পর্বে তার পা থেকে তেমন মনে রাখার মতো কিছু বেরোয়নি।

তবে বেলজিয়ামের কাছে হারে ভক্ত-সমর্থকদের সব গঞ্জনা নীরবে সহ্য করতে প্রস্তুত এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার। ব্রাজিলের খেলার ধরন এবং জেতার মানসিকতার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা ফাইনাল পর্যন্ত জেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তাদের বিপক্ষে আমরা আমাদের সেরা শটগুলো নিতে পারিনি। আমাদের দলের সবাই সর্বোচ্চটা দিতে চেয়েছে।’

কুতিনহো বলেন, ‘আমি নিশ্চিত এখন আমরা সব দিক থেকেই সমালোচিত হবো। তবে তাতে জীবনে ছেদ পড়বে না। এটাই ফুটবল। আপনি জিতবেন নয়তো হারবেন। হারার কারণে আমরা খুব হতাশ। কারণ আমরা খুব ভালোভাবে জিততে চেয়েছিলাম। ব্রাজিলিয়ানরা যেমনটা চায়। কিন্তু আমরা তা পারিনি।’

সিলভা-মিরান্ডাদের বয়স ৩৩ পেরিয়ে যাচ্ছে। স্বাভাবিকভাবে কাতার বিশ্বকাপে ব্রাজিল একাদশে তাদের জন্য দরজাটা বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তবে এসব নিয়ে এখনই ভাবতে চান না কুতিনহো।

‘কারা অবসর নেবে, কে নেবে না তা বলা কঠিন। সবাই একটি প্রজন্মের অংশ। আমি যেমন দল থেকে বিদায় বলছি না। তবে আগামী বিশ্বকাপ দলে আমি থাকবো কিনা তাও জানি না’- যোগ করেন এই সেলেসাও তারকা।

ব্রেকিংনিউজ/

Leave A Reply

Your email address will not be published.