সামনে অনেক কঠিন সময় আসছে: ডা.জাফরুল্লাহ

0 104
                                                                                                          ফাইল ফটো

সামনে অনেক কঠিন সময় আসছে এবং তা মোকাবিলা করার জন্য বিএনপিকে একটু বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, ‘সামনে অনেক কঠিন সময় আসছে। একদিকে ভারতের অত্যাচার, তাদের নানা রকমের তালবাহানা আর অন্যদিকে গুম-খুনের মহোৎসব। কুমিল্লাতে অনেক মানুষের মৃতদেহ পাওয়া যাচ্ছে। বিএনপির প্রতি আহ্বান, একটু বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিন। এত ভয় পাবেন না, আপনাদের পক্ষে অনেক লোক আছে।’

গণতন্ত্র ফি‌রি‌য়ে আনাই বিজয় দিবসের অঙ্গীকার ব‌লেও মন্তব‌্য ক‌রেন ডা. জাফরুল্লাহ।

বৃহস্প‌তিবার (১৭ ডি‌সেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লা‌বের তফাজ্জল হো‌সেন মা‌নিক মিয়া হ‌লে ন‌্যাশনাল ডে‌মো‌ক্রেটিক পা‌র্টি (এন‌ডি‌প) এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপল‌ক্ষে “স্বাধীনতা আজ বিপর্য‌য়ে নৈ‌তিকতার অবক্ষয় বিপন্ন মানবতা” শীর্ষক আলোচনা সভায় তি‌নি এসব কথা ব‌লেন।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘বিজয় দিবসের অঙ্গীকার হবে গণতন্ত্র ফেরানো। গণতন্ত্র ছাড়া কোনও কথা নেই। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হলে ঢাকাতে বসে থাকলে হবে না, ১৮ কোটি মানুষের মাঝে ছড়িয়ে যেতে হবে। গণতন্ত্র আমাদের ফিরিয়ে আনতে হবে। গণতন্ত্র ছাড়া কিছু হবে না। গণতন্ত্রের মানে হলো সরকারের জবাবদিহিতা। সরকারের কাজের উত্তর দিতে হবে, আর আমাকে প্রশ্ন করার অধিকার দিতে হবে। মিটিং মিছিল করার অধিকার দিতে হবে।’

দেশের সবচেয়ে বড় দল বিএনপির কোথাও কোনও আন্দোলন নেই উল্লেখ ক‌রে জাফরুল্লাহ চৌধুরী ব‌লেন, ‘সরকার যে ধরনের কথাবার্তা বলছেন বিজয় দিবসে তাদের (বিএনপি) বলা উচিত ছিল- মুক্তিযুদ্ধের হিসাব নাও, বিএমপিতে যত মুক্তিযোদ্ধা আছে, আওয়ামী লীগেও তত নেই।’

ভাস্কর্য থেকেও ভোট ডাকাতিকে বড় অন্যায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ভোট ডাকাতি কিভাবে বন্ধ করা যায় সেটা দেখতে হবে। জনগণ ভোট দিতে যাচ্ছে না। এর প্রতিকার কিভাবে করা যাবে সেটা ভাবতে হবে। ভোট দিচ্ছে পুলিশ আর আমলারা। এই ভোট ডাকাতি বন্ধ করতে আমাদের সবার সম্মিলিত চেষ্টার দরকার।’

আলেমদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আলেমদের সাথে সরকার আলোচনা করছে। সেটা ভালো। মৌলভী ও মাওলানা সাহেবদের সবাই সম্মান করে। দু-চারজন আলেমদের নামে বলাৎকারের অভিযোগ এসেছে। সব মাদরাসাতে এমন ঘটনা ঘটে তা কিন্তু নয়। দু-চারটে ঘটনাইবা কেন থাকবে। আলেমদের হেদায়েত করতে হবে। ধর্মকে নিয়ে বাড়াবাড়ি করা উচিত না। ইসলামের অনেক ভালো গুণ আছে। আজকে আমাদের যুগের সাথে তাল মিলিয়ে অনেক কিছুর পরিবর্তন আনা দরকার।’

সংগঠনটির চেয়ারম্যান কে এম আবু তাহেরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মুস্তাফিজুর রহমান ইরান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.