সিরিজ জয়ের অপেক্ষা ফুরাবে কাল?

১২৪
বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। ছবি : সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের অপেক্ষা শেষ হতে পারতো গত ম্যাচেই। কিন্তু তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ব্যাট হাতে চরম হতাশ করেছেন ব্যাটসম্যানরা। অবশ্য এখনো আশা শেষ হয়ে যায়নি। সিরিজে এখনো দুই ম্যাচ বাকি। একটি ম্যাচ জিতলেই কিউইদের বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয়ের কীর্তি গড়বে বাংলাদেশ।

আগামীকাল বুধবার সিরিজের চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায়। সরাসারি দেখা যাবে জিটিভি ও টি-স্পোর্টসে।

চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে জিতলে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ নিশ্চিত হবে বাংলাদেশ। হারলে সিরিজের মিশনে ২-২ সমতা টানবে নিউজিল্যান্ড। তখন সিরিজের ভাগ্য নির্ধারণ হবে পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে। যেটি মাঠে গড়াবে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর।

তৃতীয় ম্যাচ শেষে গতকাল বিশ্রামে ছিল দুদল। আজ মঙ্গলবার দুদলই নেমে পড়েছে অনুশীলনে। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অনুশীলন করেছে অতিথিরা। বাংলাদেশ মাঠে নেমেছে দুপুরের পর। দুদলেরই চোখ সিরিজ জয়ে।

কিন্তু হতাশার ব্যাপার হলো বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা রানে নেই। ওপেনিংয়ে বাজে সময় যাচ্ছে লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈমের। মিডল অর্ডারেও দায়িত্ব নিতে পারছেন না সাকিব-মুশফিকরা। নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরার পর বল হাতে আলো ছড়ালেও সাকিবের ব্যাটে তেমন রান নেই। তরুণরাও খুব একটা দায়িত্ব নিতে পারছেন না। সব মিলে বাংলাদেশের চিন্তার কারণ ব্যাটিং নিয়ে।

জয়ের পথ তৈরি করতে বাংলাদেশের মূল ভরসা তাই উইকেট। নিজেদের কন্ডিশন কাজে লাগাতে পারলে সাফল্য আসবে। যদিও এই উইকেটে রান নিতে ভুগতে হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদেরও। যেমনটা শোনালেন ওপেনার লিটন দাস, ‘টি-টোয়েন্টিতে সবসময় মানসিকতা থাকে বড় স্কোর করা, স্ট্রাইক রেট ঠিক রাখা। খেলার ধরণ পাল্টাতে হচ্ছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এরকম খেলা একটু কঠিন। কারণ প্রতিটি ব্যাটসম্যানই একটু আক্রমণাত্মক মেজাজে থাকে।’

উইকেট নিয়ে সমস্যার কথা জানিয়ে লিটন আরও বলেন, ‘কন্ডিশনের কারণে গত তিন ম্যাচে লো স্কোর হয়েছে। শুধু আমরা না, তাদের ব্যাটসম্যানরাও ভুগছে। এটা তো চ্যালেঞ্জিং। আমরা যেখানে খেলছি এখানে প্রচন্ড গরম আবহাওয়া, নিজেকে ওভাবে মেইন্টেইন করতে হচ্ছে। আমার কাছে মনে হয় বিশ্রামটা খুব দরকার। সবাই ফিটনেসে অনেক মনোযোগ দিচ্ছি, জিম করছি।’

Comments are closed.