সেলিম আল দীনের ৬৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা

0 217

বিনোদন ডেস্ক : সেলিম আল দীনের ৬৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শুরু হচ্ছে জন্মোৎসব। দেশের বরেণ্য এ কারিগরকে শ্রদ্ধা জানাতে ঢাকা থিয়েটার ও স্বপ্নদল আলাদাভাবে উৎসবের আয়োজন করেছে।

ঢাকা থিয়েটার থেকে জানানো হয়, জয়ন্তী উপলক্ষে তারা বক্তৃতা, নাটক, শোভাযাত্রা করবে। প্রায় একই আয়োজন স্বপ্নদলেরও। ১৭ ও ১৮ আগস্ট এ উৎসব দুটি হবে।

উৎসবের প্রথমদিন (১৭ আগস্ট) বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার হলে বিকাল সাড়ে তিনটায় ঢাকা থিয়েটারের আয়োজন শুরু হবে। সন্ধ্যায় জাতীয় নাট্যশালার মূল মঞ্চে থাকবে ‘ধাবমান’ নাটক। সেলিম আল দীনের রচনায় এটি নির্দেশনা দিয়েছেন শিমূল ইউসুফ।

পরদিন (১৮ আগস্ট) সকাল ঢাকা থিয়েটারের উদ্যোগে সাড়ে ১০টায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সেলিম আল দীনের সমাধিতে পুষ্পস্তবক দেওয়া হবে।

এদিকে ১৭ আগস্ট সন্ধ্যায় স্বপ্নদলের আয়োজনে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার হলে নাট্যাচার্য সেলিম আল দীনের জীবন-কর্ম-দর্শন নিয়ে আলোচনাসহ উৎসব উদ্বোধন করবেন নাট্যজন আতাউর রহমান। এতে স্বাগত বক্তব্য দেবেন স্বপ্নদলের প্রধান সম্পাদক জাহিদ রিপন। এদিন সন্ধ্যা ৭টায় ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ প্রদর্শনী হবে।

১৮ আগস্ট সকালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নাট্যাচার্যের সমাধিতে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করবে স্বপ্নদল।

এরপর সন্ধ্যা ৭টায় শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটারে হলে রয়েছে জাহিদ রিপনের নির্দেশনায় স্বপ্নদলের প্রযোজনা ‘হরগজ’।

নাট্যকার সেলিম আল দীন জন্মেছিলেন ১৯৪৯ সালের ১৮ আগস্ট ফেনীর সোনাগাজী থানার সেনেরখিল গ্রামে। মফিজউদ্দিন আহমেদ ও ফিরোজা খাতুনের তৃতীয় সন্তান তিনি। শৈশব ও কৈশোর কেটেছে ফেনী, চট্টগ্রাম, সিলেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও রংপুরের বিভিন্ন স্থানে। বাবার চাকরির সূত্রে এসব জায়গার বিভিন্ন স্কুলে পড়াশোনা করেছেন তিনি।

১৯৯৫ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মধ্যযুগীয় বাংলা সাহিত্যে নাটকের ওপর গবেষণা করে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন সেলিম আল দীন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের প্রতিষ্ঠা সেলিম আল দীনের হাত ধরেই। তার সম্পাদনায় ‘থিয়েটার স্টাডিজ’ নামে পত্রিকা প্রকাশিত হতো নাট্যতত্ত্ব বিভাগ থেকে। ঢাকা থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সেলিম আল দীন ১৯৮১-৮২ সালে নাট্য নির্দেশক নাসিরউদ্দীন ইউসুফকে সঙ্গে নিয়ে গড়ে তোলেন বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার।

তিনি শুধু নাটক রচনার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকেননি, বাংলা ভাষার একমাত্র নাট্যবিষয়ক কোষগ্রন্থ বাংলা নাট্যকোষ সংগ্রহ, সংকলন, প্রণয়ন ও সম্পাদনা করেছেন। তার রচিত ‘হরগজ’ নাটকটি সুয়েডীয় ভাষায় অনূদিত হয় এবং এ নাটকটি ভারতের রঙ্গকর্মী নাট্যদল হিন্দি ভাষায় মঞ্চায়ন করেছে।

সেলিম আল দীন ২০০৮ সালের ১৪ জানুয়ারি ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কেন্দ্রীয় মসজিদের কাছে তাকে সমাহিত করা হয়।

ব্রেকিংনিউজ/

Leave A Reply

Your email address will not be published.