হাজারা নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠী সম্প্রতি বিশ্ব হাজারা সম্মেলনের মাধ্যমে মঙ্গোলিয়ায় আশ্রয় চেয়েছে

10

নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠী নির্মূলের তালিবান নীতির কারণে আফগানিস্তান ছাড়া শরনার্থীর সংখ্যা উল্লেখজনকভাবে বেড়ে গেছে। আফগানিস্তানে বসবাসকারী হাজারা মঙ্গল নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠী সম্প্রতি বিশ্ব হাজারা সম্মেলনের মাধ্যমে মঙ্গোলিয়ায় আশ্রয় চেয়েছে। News Source: A24 News Agency

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে ৩০০ থেকে ১০০০ হাজারার জন্য মঙ্গোলিয়ায় অস্থায়ী আশ্রয়ের অনুরোধ করেছে তারা। মঙ্গোলিয়ার মানবাধিকার কর্মীরা আফগানিস্তানে নির্যাতিত হাজারাদের স্বাগত জানাতে নানা কার্যক্রম শুরু করেছে। হাজারা মঙ্গলরা একটি মঙ্গোলীয় নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠী যারা প্রাগৈতিহাসিককাল থেকে আফগানিস্তানে বসবাস করে আসছে।

গবেষক ও মানবাধিকার কর্মী বি মুনখবায়ার আফগানিস্তানে মঙ্গোলিয়ান ন্যাশনাল সোশ্যাল কাউন্সিলরে একটি চিঠি পেয়েছেন যাতে বলা হয়েছে তারা মঙ্গোলিয়ার জনগনের কাছ থেকে যে কোন ধরনের সহায়তা গ্রহন করতে ইচ্ছুক। আন্তর্জাতিক অর্থে মঙ্গোলিয়ায় অস্থায়ীভাবে ৩০০- ১০০০ হাজারাদের থাকার অনুমতি চেয়ে আরেকটি চিঠিও পাঠানো হয়েছে।

এ ২৪ নিউজ এজেন্সিকে তিনি বলেন, ”এইভাবে হাজারা গোষ্ঠী এখনও মঙ্গলদের কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন করছে।”
আরেক সাক্ষাৎকারে এক নাগরিক এস বায়ানমান্দাখ জানান, ”মঙ্গোলিয়ান এবং হাজারারা আফগানিস্তানে অত্যাচার, হত্যা এবং সহিংসতার শিকার হয়। তাদেরকে মঙ্গল স¤্রাজ্যের কেন্দ্রস্থলে ফিরিয়ে দেয়া উচিত।”

তিনি মঙ্গোলিয়ার আগামী দিনের জন্য আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ” মঙ্গোলিয়ায় একদিন সঠিক সরকার াকবে। সেই সময়ে আসার জন্য আপনাকে স্বাগত। এক অসাধারণ সময় আসার পে আছে এবং জনগনই এক সময় মঙ্গোলিয়াকে আবার একীভূত করবে। মঙ্গলরা সবসময়ই দুর্বল নয়।”

x