হামাকে আর থাকতে হছেনা মানুষের বাড়িতে বাড়ি পেয়ে খুশি অপূর্ব

১২৫

নিয়ামতপুর নওগাঁ প্রতিনিধিঃ হামাকে আর থাকতে হছেনা মানুষের বাড়িতে। এমন মুখ ভর্তি হাসি নিয়ে তার আবেগ প্রকাশ করেছে প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার এর ঈদ উপহার আধাপাকা বাড়ি পেয়ে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের নিয়ামতপুর হিন্দু পাড়া গ্রামের মা-বাবা পরিত্যক্তা অসহায় গৃহহীন অপূর্ব বর্মন (১৩)।

নতুন এ আধাপাকা বাড়ি পেয়ে ম-বাবা পরিত্যক্ত অপূর্ব মাথা গুজার ঠাই হওয়ায় মহাখুশি । বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্প ২ এর এবারে নিয়ামতপুর উপজেলায় ৫৫টি আধাপাকা বাড়ি পাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে নিয়ামতপুরে ১টি আধাপাকা বাড়ি পাচ্ছে অপূর্ব। অপূর্ব প্রতিবেদককে বলেন, আমার বাবার নাম মিলন বর্মন মার নাম জয়ন্তী রানী।

আমি ৮বছর বয়সে মা-বাবার স্নেহ ভালবাসা থেকে বঞ্চিত হয়েছি। মা এলাকার একজন মুসলিম ছেলের সঙ্গে চলে যায় আর বাবা এলাকার স্বজাতি মহিলার সাথে চলে গেছে। সে সময় থেকে আমি মাসির পরিবারে বড় হতে থাকি। লেখা পড়ার ইচ্ছে থাকলেও অভাবের তাড়নায় এই বয়সে চায়ের স্টলে কাজ করে যা টাকা পাই তা দিয়ে বড় বনের বিয়ে দিয়েছি।

এখন প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার আজ আমাকে ঈদ উপহার হিসেবে একটি বাড়ি দিয়েছেন। এখন আমার মাথা গোঁজার ঠাঁই হয়েছে। আমার আর কোন সমস্যা থাকলোনা। আমার মা-বাবা আমাকে ছেড়ে চলে গেছে কিন্তু আমার মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বসস্থানের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। মা-বাবা না থাকর কষ্ট আজ ভুলে গেছি। আমি আমার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য আশির্বাদ করি তিনি আরো অনেক দিন বেঁচে থাকে আর আমার মতো মা-বাবা হারা সন্তানের পাশে দাড়াতে পারে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের এই মহতি উদ্যোগকে সাদুবাদ জানাই। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ বলেন, প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যোগ্য পিতার যোগ্য সন্তান তা প্রমান করেছে হত-দরিদ্র, এতিম ও অসহায় মানুষের বাসস্থানের ব্যবস্থা করে। তাঁর নেত্রিত্বে এ দেশ এখন উন্নয়নের শীর্ষে।

Comments are closed.