হিলারি আইএস ও আলকায়দার কাছে অস্ত্র বিক্রির নির্দেশ দিয়েছিলেন : উইকিলিকস

0 762

Wikileaksআন্তর্জাতিক ডেস্ক : চাঞ্চল্যকর গোপন তথ্য ফাঁসের জন্য খ্যাত ওয়েবসাইট উইকিলিকস জানিয়েছে, এই সংস্থার কাছে এমন কিছু নতুন দলিল-প্রমাণ এসেছে যা থেকে বোঝা যায় সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন নিজেই তাকফিরি-ওয়াহাবি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ বা আইএসআইএল ও আলকায়দার কাছে অস্ত্র বিক্রির নির্দেশ দিয়েছিলেন।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি সন্ত্রাসবাদের প্রতি সহায়তার কারণে বড় ধরনের সংকটের মুখে পড়েছেন। তিনি নিজেই ‘হার্ড চয়েসেস’ বা ‘কঠিন পছন্দগুলো’ শীর্ষক নিজের লেখা বইয়ে দায়েশ সৃষ্টিতে মার্কিন সরকারের ভূমিকা থাকার কথা স্বীকার করেছেন। রিপাবলিকান দলীয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পও সম্প্রতি সিএনএন টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, হিলারি ক্লিনটন তার নির্বুদ্ধিতাসুলভ নীতির কারণে দায়েশ সৃষ্টির জন্য দায়ী।

উইকিলিকসের মালিক ও প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ সম্প্রতি ‘ডেমোক্রেসি নাউ’ নামের একটি সংস্থাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ওবামার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের সময় হিলারি কাতারের কাছে মার্কিন অস্ত্র বিক্রির নির্দেশ দিয়েছিলেন। তিনি লিবিয়ার বিদ্রোহীদের কাছেও অস্ত্র বিক্রির নির্দেশ দিয়েছিলেন যাতে গাদ্দাফির পতন ঘটে। এরপর হিলারি এই অস্ত্র সিরিয়ায় পাঠানোর নির্দেশ দেন যাতে বাশার আসাদ সরকারের পতন ঘটানো যায়।

‘ফ্রেন্ডস অব সিরিয়া’ বা ‘সিরিয়ার কথিত মিত্রদের জোট’ গড়ার কাজেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন হিলারি যাতে সিরিয়ায় সরকার পরিবর্তনের কাজে সহায়তা দিতে পারে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। সিরিয়ার মিত্র নামের কথিত গোষ্ঠীগুলোর একটি গোষ্ঠী সম্প্রতি ১২ বছরের এক অসুস্থ ফিলিস্তিনি শিশুকে জবাই করে হত্যা করেছে।

হিলারি ২০১৩ সালে লিবিয়ায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত হত্যার বিষয়ে আমেরিকার একটি তদন্ত কমিটির কাছে সাক্ষ্য দিতে গিয়ে লিবিয়ার বিদ্রোহীদের কাছে অস্ত্র বিক্রি সম্পর্কে কোনো তথ্য জানার কথা অস্বীকার করেছিলেন। কিন্তু জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ বলেছেন, সম্প্রতি প্রকাশিত হিলারির ১ হাজার ৭০০ ই-মেইল থেকে স্পষ্ট হয়েছে যে তিনি লিবিয়া ও সিরিয়ায় অস্ত্র পাঠানো এবং দায়েশ ও আলকায়দার কাছে অস্ত্র বিক্রির ঘটনায় সরাসরি জড়িত ছিলে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x