হেটে চলা বুলবুলকে ধরে তার সঙ্গে কোলাকুলি করলেন লিটন

0 571

রাজশাহী অফিস : চলছে বেসরকারি সময় টেলিভিশনের নির্বাচনী টকশোর অনুষ্ঠানের দৃশ্যধারণ। টকশোতে উপস্থিত আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থী। অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল দ্রুত গতিতে হেটে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করছিলেন। এ সময় সামনে এগিয়ে বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে নেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এরপর তার সঙ্গে কোলাকুলি করেন লিটন। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকেলে রাজশাহী কলেজ মাঠে।

খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র। আর মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সদ্য বিদায়ী মেয়র। আগামী ৩০ জুলাই রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে লড়ছেন লিটন ও বুলবুল।

জানা গেছে, শুক্রবার বিকেল ৪টা ১৫মিনিটে সময় টেলিভিশনের বার্তা প্রধান তুষার আবদুল্লাহর উপস্থাপনায় নির্বাচনী টকশোর দৃশধারণ শুরু হয়। প্রায় ৫০ মিনিটের টকশোতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা নিজেদের সফলতা ও অপরের ব্যর্থতার বিষয়গুলো তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানের শেষের দিকে উপস্থাপক খায়রুজ্জামান লিটন ও বুলবুলের সৌর্হাদ্যপূর্ণ সম্পর্কের কথা তুলে ধরে নির্বাচনের পরেও এমনই সৌর্হাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক রাখার জন্যে আহ্বান জানিয়ে টকশো শেষ করেন।

টকশোতে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আমি মেয়র থাকলেও রাজশাহীবাসীর উন্নয়নের কথা চিন্তা করে বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ে গেছি, যাতে রাজশাহীর উন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্প পাওয়া যায়। কিন্তু সদ্য বিদায়ী মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল মেয়র হয়েও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেননি। এমনকি প্রধানমন্ত্রী কয়েকবার রাজশাহীতেও বুলবুল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেননি। উন্নয়নের জন্যে কোনো প্রকল্প ও বরাদ্দ চাননি প্রধানমন্ত্রীর কাছে। এতে করে পিছিয়েছে রাজশাহী। অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে খায়রুজ্জামান লিটনের সঙ্গে কথা না বলেই দ্রুতগতিতে হাটতে শুরু করেন বুলবুল। এ সময় বুলবুল হেটে চলে যাচ্ছেন দেখতে পেয়ে তার দিকে কিছুদূর এগিয়ে গিয়ে বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে নেন এবং কোলকুলি করেন। এ সময় উপস্থিত সবাই জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান হেনার ছেলে খায়রুজ্জামান লিটনের প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, রাজনীতির বাইরে এসে মানবিকতা ও মহানুভবতার পরিচয় প্রদান খায়রুজ্জামান লিটনের এই প্রথম দিলেন, তা নয়। এরআগে গত ২৮ জুন রাসিক নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে নির্বাচনের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের অস্স্থু সন্তানকে দেখতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়েছিলেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটন। এরআগে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, সাবেক রাসিক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে বাসায় দেখতে গিয়েছিলেন খায়রুজ্জামান লিটন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.