২০২৪ সালের নির্বাচনেও লড়তে চান বাইডেন : হোয়াইট হাউস

12
মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি : সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ২০২৪ সালের নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চান। গতকাল সোমবার হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি সাংবাদিকদের এমনটাই বলেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে বাইডেন যখন শপথ নেন, তখন তার বয়স ছিল ৭৮ বছর ২ মাস। যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি বয়সে প্রেসিডেন্ট হওয়া এ ডেমোক্র্যাট গেল ২০ তারিখ পা রেখেছেন ৭৯ তে।

কয়েক মাস ধরে বাইডেনের প্রতি মার্কিন নাগরিকদের আস্থাও আগের তুলনায় কম দেখা যাচ্ছে বলে প্রকাশিত বেশ কয়েকটি জরিপে ইঙ্গিত মিলেছে। বয়স, পরিস্থিতি- সব মিলিয়ে তিনি আরও চার বছরের জন্য প্রেসিডেন্ট হতে চাইবেন না বলেই মনে করছেন অনেক ডেমোক্র্যাট।

‘তিনি চান, তার আগ্রহ আছে,’ নর্থ ক্যারোলাইনার ফোর্ট ব্র্যাগে মার্কিন সেনাদের সঙ্গে থ্যাংকসগিভিংয়ের এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়া বাইডেনকে নিয়ে বলেন সাকি।

রয়টার্স জানিয়েছে, চলতি মাসের শুরুতে দুটি অঙ্গরাজ্যের গভর্নর নির্বাচনের ফল বাইডেন সমর্থকদের দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে।

এর মধ্যে একটিতে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পঘনিষ্ঠ রিপাবলিকান প্রার্থীর জয় অনেককেই চমকে দিয়েছে। ডেমোক্র্যাটরা ধাক্কা খেয়েছে নিউ জার্সির নির্বাচনের ফলেও। ডেমোক্র্যাটদের ঘাঁটি বলে পরিচিত এই অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্র্যাট প্রার্থীকে জিততে হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে।

বাইডেন যদি পরের নির্বাচনে না দাঁড়ান, তাহলে ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের লড়ার সম্ভাবনা প্রবল। কিন্তু তাঁকে নিয়েও আশাবাদী হতে পারছেন না দলের সমর্থকেরা। ইউএসএ টুডে/সাফোক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক এক জরিপে অংশ নেওয়াদের মাত্র ২৮ শতাংশ হ্যারিসের প্রতি তাদের আস্থার কথা জানিয়েছেন।

জানুয়ারিতে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর বাইডেন গত শুক্রবার প্রথমবারের মতো স্বাস্থ্য পরীক্ষার মুখোমুখি হয়েছিলেন। তাতে সামান্য কিছু শারীরিক সমস্যা পাওয়া গেলেও ৭৯ বছর বয়সী এ ডেমোক্র্যাট ‘প্রেসিডেন্টের কাজ চালানোর মতো ফিট’ বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

x