অস্ট্রেলিয়ানদের ক্ষমা করে দিয়ে সব ভুলে যেতে কোহলিকে পরামর্শ গাঙ্গুলীর

0 985

খেলাধুলা ডেস্ক : নিজ মাঠে সদ্য শেষ হওয়া টেস্ট সিরিজে স্লেজিং-এর জন্য অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের ক্ষমা করতে এবং মাঠের সকল তর্ক-বির্তক ভুলে যেতে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে ভুলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। ভারত-অস্ট্রেলিয়া চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শেষে কোহলির উদ্দেশ্যে এমন মন্তব্য করেন গাঙ্গুলী। তিনি বলেন, ‘মাঠের বিতর্কে সোচ্চার ছিলো দু’পক্ষই। তবে সবক্ষেত্রে শুরুটা করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। তাই অস্ট্রেলিয়ানদের নিজের বন্ধুত্বের তালিকা থেকে ছেটে ফেলেন কোহলি। আমি কোহলিকে বলবো, তাদের ক্ষমতা করে দিতে এবং সবকিছু ভুলে যেতে।’
চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে ভারতের মাটিতে পা দিয়ে প্রথম সংবাদ সম্মেলনেই হুশিয়ারি বক্তব্য দেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। সিরিজ নিয়ে নয়, কোহলিকে উদ্দেশ্যে করে। টেস্ট সিরিজে স্লেজিং দিয়েই কোহলির মাথা বিগড়ে দেয়ার পরিকল্পনার কথা জানান স্মিথ। তাই মাঠে বল গড়ানোর আগে এবং পরেও স্লেজিং-এ মেতে উঠে অস্ট্রেলিয়ারা।
শুধুমাত্র কোহলিই নয়, ভারতের অন্যান্য খেলোয়াড়দেরকেও স্লেজিং-এ উত্যক্ত করে তুলে অস্ট্রেলিয়া। সেই লড়াইয়ে পরে শামিল হয় ভারতও। মুখের ভাষা ও আচার-আচরণ দিয়ে অস্ট্রেলিয়াকেও পাল্টা বিরক্ত করে টিম ইন্ডিয়া। এতে ব্যাট-বলের লড়াইয়ের সাথে তর্ক-বিতর্ক জমে উঠে মাঠে। মাঠের বাইরেও সেটি বহাল রেখেছিলো দু’দল।
কোহলির আউট নিয়ে ব্যঙ্গ করা, ভারত অধিনায়কের কাঁধের ইনজুরি নিয়ে রঙ্গ-তামাশা ছাড়া আরও অনেক কিছুতে পারদর্শিতা দেখায় অস্ট্রেলিয়া। দলের খেলোয়াড়দের পাশাপাশি কোহলিকে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে তুলনা করে বিতর্ক আরও বাড়িয়ে দেয় অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যম।
তবে সিরিজ চলাকালীন এসব নিয়ে খুব বেশি কথা বলেননি কোহলি। কিন্তু সিরিজ শেষে অস্ট্রেলিয়ানদের দিকে বারুদই ছুঁড়ে দেন কোহলি, ‘এই সিরিজের পর থেকে মাঠের বাইরে অস্ট্রেলিয়ার সাথে কোন বন্ধুত্ব থাকবে না আমার।’
কোহলির এমন কথা বিশ্ব মিডিয়ায় ফলাও করে প্রকাশ পেয়েছে। তবে এসবকে আমলে না নিয়ে অস্ট্রেলিয়ানদের ক্ষমা করতে এবং সিরিজ চলাকালীন সকল বিতর্ক ভুলে যেতে কোহলিকে অনুরোধ করলেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক গাঙ্গুলী, ‘আমি আশা করি, সে সবকিছু সহজভাবে নিবে এবং মাঠে অস্ট্রেলিয়ার সাথে ঘটে যাওয়া সকল বিতর্কগুলোও ভুলে যাবে। এটা প্রতিযোগিতামূলক সময়। এসব ঘটতেই পারে। কিন্তু মিডিয়া ও সাবেক খেলোয়াড়রা প্রতিপক্ষের অধিনায়কের (কোহলি) সাথে এমন স্লেজিং করতে পারে না। এগুলো তাদের কাজ নয়।’
মাঠে প্রতিপক্ষের সাথে বিবাদে জড়িয়ে যাওয়া অস্ট্রেলিয়ার পুরনো অভ্যাস। সাবেক অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহ’র আমল থেকে এমনটা অস্ট্রেলিয়া করে আসছে বলেও জানান গাঙ্গুলী, ‘স্টিভ ওয়াহ’র সময় থেকেই এভাবে ক্রিকেট খেলে আসছে অস্ট্রেলিয়া। প্রতিপক্ষের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পড়া এবং স্লেজিং করা অস্ট্রেলিয়ার অভ্যাস সেখান থেকেই শুরু হয়েছিলো।’
এখন সিরিজ শেষ, তাই শেষ হওয়া সিরিজে কি ঘটেছিলো তা দু’দল ও বোর্ড ভুলে যাবে বলেও প্রত্যাশা করেন গাঙ্গুলী, ‘সিরিজটি প্রতিযোগিতামূলক ছিলো। কোহলি-স্মিথ খুশী যে তারা নিজেদের উপস্থাপন করতে পেরেছে। দু’দলের খেলোয়াড় ও বোর্ড অতীত হওয়া সিরিজের ঘটনাগুলো ভুলে যাবে।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x