আত্রাইয়ে তিন ফসলি জমিতে পুকুর খনন, প্রশাসন নীরব

0 ৯৩
আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে দিদারছে চলছে পুকুর খনন। স্থানীয় কিছু ক্ষমতাবান ব্যক্তিরা তাদের ক্ষমতার প্রতাব খাটিয়ে চালিয়ে যাচ্ছে পুকুর খনন। তিন ফসলি জমিতে কোন পুকুর খনন করা যাবেনা এমন উচ্চ আদারতের নির্দেশ থাকলেও তা অমানো করে হরহারমসাই উপজেলায় চলছে পুকুর খননের কাজ। উপজেলার আটটি ইউনিয়নের বিভিন্ন মাঠে চলছে এই পুকুর খনন। তবে এ বিষয়ে প্রশাসন কোন পদক্ষেপ গ্রহন করছেনা বলে অভিযোগ স্থানীয় কৃষকদের।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার বিভিন্ন মাঠে তিন ফসলি জমিতে চলছে পুকুর খননে কাজ, এই পুকুর খনন করলে একদিকে কমছে ফসলি জমির পরিমান, অন্নদিকে তারা এই মাটি বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করতে ব্যবহার হচ্ছে গ্রামীণ সড়ক। তাতে করে অল্প সময়ের মধ্যে নষ্ঠ হচ্ছে এ গ্রামীন সড়কগুলো, এই সড়ক ব্যবহার করায় সড়কে মাটি পরে অল্প বৃষ্টি হলে ঘটছে অনেক দূর্ঘটনা এমনকি অনেক সময় মৃত্যুর ঘটনা ও ঘটে। এই উপজেলায় মোট ২৮৩৭ টি বেসরকারি এবং ২২৪ টি সরকারি পুকুর রয়েছে। তবুও প্রতিনিয়ত যেভাবে পুকুর খনন বাড়ছে এভাবে পুকুর খনন বাড়লে মারাতœক ঝুকিতে পড়বে কৃষি জমি।
উপজেলার মনিয়ারি ইউনিয়নের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কৃষক বলেন, আমাদের এই ইউনিয়নে অনেক তিন ফসলির মাঠে অবাদে পুকুর খননের কাজ চলছে। এ বিষিয়ে অনেকবার ইউনিয়ন ভূমি অফিসে জানানো হলে তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনা। অমার মনে হয় এই ব্যবসায়ীরা তাদের ম্যানেস করে পুকুর খনন করে থাকে। হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের আরো এক কৃষক বলেন, হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের ডাঙ্গিপাড়া গ্রামের উত্তর বিল কাজিরডাক মাঠে বিশ বিঘার এক তিন ফসলি জমিতে পুকুর খনন চলছে। তবে মাটি খনন করা মেশিন (ভেকু) মালিক ক্ষমতাবান হওয়ায় তার ভয়ে কেউ কিছু বলতে পারেনা। তারাও অনেক চালাক দিনে মেশিন বন্ধ করে রাখে, আর রাত হলেই চালু করে। এ সকল অবৈধ ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবিও জানান তারা।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বলেন, এ বিষয়ে আমার জানা ছিলনা, বিষয়টি আমি দেখছি।#

Leave A Reply

Your email address will not be published.