আবারও ৩ মাস পেছাল ব্রেক্সিট

0 8

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ব্রিটেনের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আবারও ব্রেক্সিট কার্যকরে ৩ মাসের সময় দিল ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। ব্রেক্সিট কার্যকরে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছেন ইইউ নেতারা।

এর ফলে ব্রিটেনে আগাম নির্বাচনের সম্ভাবনাও বাড়ল। দেশটির বিরোধী সংসদ সদস্যরা বলেছিলেন, ইইউ সময় বাড়ালেই আগাম নির্বাচনের বিষয়টি ভেবে দেখবেন তারা।

বিবিসি জানিয়েছে, ইইউ কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক সোমবার বলেন, ব্রিটেনের পার্লামেন্টে ব্রেক্সিট (ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়া) কার্যকরে চুক্তি অনুমোদনের জন্য পর্যাপ্ত সময় দেয়া হল।

এ বিষয়ে ইইউর নেতারা একমত হয়েছেন। ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট ডেভিড সাসোলি বলেন, ব্রিটেনের চাওয়া স্পষ্ট করতেই এ সময় দেয়া হল।

এ নিয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া দেখায়নি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর অফিস। ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইইউর সিদ্ধান্তের বিস্তারিত জানার পর প্রধানমন্ত্রী এ নিয়ে কথা বলবেন। তিনি এখনও যে কোনো মূল্যে ৩১ অক্টোবর পূর্ব নির্ধারিত সময়েই ব্রেক্সিট কার্যকরের পক্ষে রয়েছেন।

চলতি বছরের মার্চে ব্রেক্সিট কার্যকরের তারিখ থাকলেও ব্রিটেনের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তা ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয় ইইউ।

ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে একাধিকবার সংসদে বিল উঠিয়েও কোনো সুরাহা করতে না পেরে পদত্যাগ করেন তৎকালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে।

তার উত্তরসূরি বরিস জনসনও সংসদ সদস্যদের নিয়ে ঐকমত্যে পৌঁছাতে না পেরে ৩১ অক্টোবর চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু নানা নাটকীয়তার পর তিনিও তাতে হেরে যান। ফলে ইইউতে আবারও সময় বাড়ানোর আবেদন করে ব্রিটেন।

রয়টার্স বলছে, ৩১ অক্টোবর ব্রেক্সিট কার্যকরের আশা ভেস্তে যাওয়ার পর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস সংসদে বিরোধী লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিনকে লেখা এক চিঠিতে ১২ ডিসেম্বর আগাম নির্বাচনের প্রস্তাব দেন।

তার মতে, ২০২০ সাল পর্যন্ত এমন অচলাবস্থা চলতে দিলে ব্যবসা-বাণিজ্য, কর্মসংস্থান ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি মৌলিক সমর্থন ক্ষতিগ্রস্ত হবে। করবিন নীতিগতভাবে আগাম নির্বাচনের পক্ষে থাকলেও চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের আশঙ্কা পুরোপুরি দূর হওয়া পর্যন্ত এ প্রস্তাবে সমর্থন জানাতে চান না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.