উদ্ধার বাংলাদেশি ও পাকিস্তানিদের আশ্রয় দেবে না গ্রিস

১১৮
ক্রিট উপকূল থেকে উদ্ধার প্রায় ৪০০ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মধ্যে বাংলাদেশি ও পাকিস্তানিদের আশ্রয় দেবে না ইউরোপের দেশ গ্রিস। ছবি : সংগৃহীত

ক্রিট উপকূল থেকে উদ্ধার প্রায় ৪০০ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মধ্যে বাংলাদেশি ও পাকিস্তানিদের আশ্রয় দেবে না ইউরোপের দেশ গ্রিস। তাদের যত দ্রুত সম্ভব নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে তোড়জোড় শুরু করেছে গ্রিক কর্তৃপক্ষ। আজ বুধবার গ্রিক অভিবাসন মন্ত্রণালয়ের বরাতে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম গ্রিক রিপোর্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

গত শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) একটি তুর্কি জাহাজ থেকে ৩৮১ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে উদ্ধার করে গ্রিসের কোস্টগার্ড। ক্রিট উপকূলের কাছাকাছি পৌঁছে ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে গেলে বিপদে পড়ে জাহাজটি। পরে সেটিকে টেনে কোস বন্দরে নিয়ে যায় গ্রিক কোস্টগার্ড।

ইন্টারসস নামের একটি ইতালীয় এনজিও জানিয়েছে, জাহাজটিতে ১৯২ জন পাকিস্তানি, ১১২ জন আফগান, ৫৬ জন বাংলাদেশি, পাঁচজন মিশরীয়, চারজন লেবানিজ, চারজন সিরীয় ও দুজন ইরানি নাগরিক ছিলেন।

এদের মধ্যে বাংলাদেশি ও পাকিস্তানি অভিবাসনপ্রত্যাশীদের স্বদেশে ফেরাতে উদ্যোগ নিয়েছে গ্রিস সরকার।

গ্রিক অভিবাসন মন্ত্রী নোটিস মিতারাকিস গত সোমবার টুইটারে বলেছেন, ‘এ বিষয়ে দ্বৈত প্রচেষ্টা শুরু হয়েছে। কোস বন্দরে পৌঁছানো জাহাজের বেশিরভাগ আরোহীকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতে আমাদের একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে হবে।’

এর আগে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছিল, তুর্কি জাহাজ থেকে উদ্ধার অভিবাসনপ্রত্যাশীদের কোস দ্বীপের একটি অভ্যর্থনা কেন্দ্রে পাঠিয়েছে গ্রিক কোস্টগার্ড। সেখানে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা তাদের করোনা পরীক্ষা করিয়ে কোয়ারেন্টিনে রেখেছেন।

Comments are closed.