এক স্ত্রী নিয়ে দুই স্বামীর সমঝোতা!

53

বগুড়া প্রতিনিধি: এক নারীকে স্ত্রী দাবি করে দুই যুবকের মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে বগুড়ার ধুনট উপজেলায়। ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে ওই দুজনের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের নবীনগর গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে জুয়েল রানা (২৬) ও একই ইউনিয়নের বিলচাপড়ি গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে কাজল মিয়া (২২) ওই নারীকে (১৮) স্ত্রী বলে দাবি করেন।

স্থানীয়রা জানায়, পারিবারিক সম্মতিতে ওই নারীর সঙ্গে দুই মাস আগে জুয়েল রানার বিয়ে হয়। বিয়ের এক মাস পর ওই নারী বাবার বাড়ি বেড়াতে গিয়ে আর স্বামীর বাড়িতে ফেরেনি। স্ত্রীকে নিজের বাড়িতে নেওয়ার জন্য আনেক চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হয় জুয়েল রানা।

এদিকে গত শুক্রবার বিকালে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে ওই নারীকে কাজল মিয়ার সঙ্গে দেখতে পেয়ে এগিয়ে যান জুয়েল রানা। এসময় ওই নারীকে নিজের স্ত্রী দাবি করে তিনি কাজলকে মারপিট করতে থাকেন। তখন কাজলও পাল্টা জুয়েলকে মারপিট করে। স্থানীয় লোকজন তাদের দুজনকেই আটক করে থানায় সোপর্দ করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই নারীকেও তাদের হেফাজতে নেয়।

পুলিশ হেফাজতে থাকা ওই নারী বলেন, ‘প্রায় ২ মাস আগে আমার মতের বিরুদ্ধে জুয়েলের সঙ্গে বিয়ে দেয় বাবা-মা। কিন্তু জুয়েলকে পছন্দ না হওয়ায় এক মাস আগে বাবার বাড়ি ফিরে কাউকে না জানিয়ে গোপনে কাজলকে বিয়ে করি। তবে জুয়েল রানার সঙ্গে আমার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি। কাজলের সঙ্গেই আমি সংসার করতে চাই।’

এ ব্যাপারে ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন বলেন, মেয়েটির ইচ্ছার বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। মেয়েটি কাজলের সাথে ঘর-সংসার করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এ বিষয়টি নিয়ে তাদের পরিবারের সাথে আলোচনা করে নিজ নিজ স্বজনদের জিম্মার তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সমঝোতার প্রস্তাবে রাজী হয়ে জুয়েল রানা স্ত্রীর দাবি ছেড়ে দিয়ে বাড়িতে ফিরে গেছে।

x