এবারের নববর্ষে আমরা বিমর্ষ ও বেদনার্ত: ফখরুল

0 122

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘নানা দুর্যোগ-দুর্বিপাকের মধ্য দিয়ে আমাদের পালন করতে হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। ফেলে আসা বছরের দূর্যোগ, দুর্বিপাক কাটিয়ে আমরা নতুন বছরে এগিয়ে যাওয়ার সোনালী সম্ভাবনা দেখতে পাবো বলে বিশ্বাস করি। তবে এবারের নববর্ষের উৎসবে আমরা বিমর্ষ ও বেদনার্ত।’

সোমবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘রাত পোহালেই পহেলা বৈশাখ ১৪২৭। বাংলা সনের প্রথম দিন। নববর্ষের প্রথম প্রভাতে আমাদের অগণিত সমর্থক, শুভানুধ্যায়ী ও দেশবাসীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। বাংলা নববর্ষ আমাদের জাতীয় জীবনের এক উজ্জল আনন্দময় উৎসব। এই উৎসব সুপ্রাচীন ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতা। পহেলা বৈশাখ থেকেই শুরু হয় নতুন বছরকে বরণ করে নেয়ার আকুলতা। নতুন বছর মানেই অতীতের সকল ব্যর্থতা, জ্বরাজীর্ণতা পেছনে ফেলে নতুন উদ্দীপনা ও উৎসাহে সুন্দর সমৃদ্ধ আগামী বিনির্মাণে এগিয়ে যাওয়া।ব্রেকিংনিউজ

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান দুঃসময়, মহামারি ও নৈরাজ্যের অভিঘাত সত্ত্বেও আমাদের শান্তি, স্বস্তি, সুস্থতা ও সহাবস্থান ফিরিয়ে আনতে হবে। বিচ্ছেদ ও বিভাজন দূর করে পহেলা বৈশাখ ভরে উঠুক পারস্পরিক শুভেচ্ছায়।’

তিনি বলেন, ‘তবে এবারের নববর্ষের উৎসবে আমরা বিমর্ষ ও বেদনার্ত। সারা দুনিয়াজুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে জনজীবনে যে বিয়োগাত্মক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে তা বর্ণনা করার ভাষা আমার জানা নেই। দেশে দেশে করোনার আক্রমণে অসংখ্য মানুষের প্রাণহানি ঘটছে, আক্রান্ত হচ্ছেন অগণিত মানুষ। তাই এবারের বাংলা নববর্ষের উৎসব ঐতিহ্যের ধারা বেয়ে পালন করা সম্ভব হচ্ছে না। দেশের মানুষদের অনুরোধ করবো- করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে আমাদের সবসময় সতর্ক থাকতে হবে।’

বাণীতে তিনি বলেন, ‘পহেলা বৈশাখেও সকলে যেন ঘরে ঘরে অবস্থান করেন। আমি দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি- আপনারা এই সংকটকালে অসহায় গরিব মানুষের পাশে দাঁড়ান।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘প্রতিটি উৎসবের অন্তঃস্থলে থাকে কোমলতা, শ্রদ্ধা, সংকীর্ণহীনতা এবং হীনমন্যতা থেকে মুক্তির মন্ত্র। করোনা ভাইরাসের এই আগ্রাসন থেকে মুক্তির জন্য খোলা মনে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে সেটি মোকাবিলা করতে হবে। ১৪২৭ বাংলা সনের প্রথম দিনের নতুন আলোতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের নিকট কায়মনোবাক্যে দেশের সকল মানুষের সুখ ও শান্তির জন্য প্রার্থনা করছি।’

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ‘বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসে মৃত্যুবরণকারীদের আত্মার মাগফিরাত, শান্তি ও আক্রান্তদের সুস্থতা কামনা করছি। নববর্ষের এই নতুন দিনে মহান আল্লাহর কাছে সকলের ব্যক্তিগত, পারিবারিক তথা জাতীয় সকল পর্যায়ে সুখ ও শান্তি কামনা করি। দেশবাসীকে আবারও জানাই নববর্ষের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। শুভ নববর্ষ।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.

x