এরশাদের বাসায় প্রবেশ করায় বিদিশার বিরুদ্ধে জিডি

161

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: প্রয়াত সাবেক প্রেসিডেন্ট ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী বিদিশা সিদ্দিকের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করা হয়েছে।

রাজধানীর বারিধারায় এরশাদের ‘প্রেসিডেন্ট পার্ক’র বাসভবনে অবৈধভাবে প্রবেশের অভিযোগে শনিবার সন্ধ্যায় এরশাদের ট্রাস্টের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর খালেদ আখতার বিদিশার বিরুদ্ধে গুলশান থানায় এ জিডি করেন।

জিডিতে বলা হয়, এরশাদের মৃত্যুর পর তাঁর বাসভবন প্রেসিডেন্ট পার্ক যথারীতি ট্রাস্টের অধীনে পরিচালিত হলেও গেল ১৪ নভেম্বর বিদিশা সম্পূর্ণ অন্যায় ও অবৈধভাবে সেই বাসায় প্রবেশ করেন। প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসায় বিদিশার প্রবেশের কোনও অধিকার নেই বলেও জিডিতে ‍উল্লেখ করা হয়।

এদিকে শনিবার বিকেলে ট্রাস্টের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর খালেদ আখতার এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করে বলেন, ‘ট্রাস্টের নিয়ম অনুযায়ী এরিক এরশাদ তার মা বিদিশাকে নিয়ে প্রেসিডেন্ট পার্কে অবস্থান করতে পারবেন না। এখানে এরিকের চাওয়ার কোনও এখতিয়ার নেই। কেননা এরিকের সমস্ত দায়িত্ব ট্রাস্টের।’

এসময় বিদিশার প্রেসিডেন্ট পার্কে প্রবেশকে ‘অবৈধ অনুপ্রবেশ’ আখ্যা দেন খালেদ আখতার।

তিনি বলেন, ‘এরিক যদি মাকে নিয়ে থাকতে চান তবে থাকতে পারবেন। তবে প্রেসিডেন্ট পার্কে নয়, অন্যখানে।’

খালেদ বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট পার্কে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে জাতীয় পার্টির বর্তমান চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য দিয়ে আসছেন বিদিশা। এমনকি তিনি এরিককেও প্রভাবিত করছেন।’

মৃত্যুর আছে ছেলে এরিকের নামে এফডিআর, বারিধারার দূতাবাস রোডের প্রেসিডেন্ট পার্ক, গুলশানে একটি আবাসিক ফ্ল্যাট, রংপুরের পল্লী নিবাস, একটি কোল্ড স্টোরেজ, কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে ইউএই মার্কেটে একটি দোকান রেখে গেছেন এরশাদ। বর্তমানে এই সমুদয় সম্পত্তির অর্থমূল্য প্রায় ৫০ থেকে ৬০ কোটি টাকা।

খালেদ আখতার জানান, এরশাদের প্রেসিডেন্ট পার্কের ফ্ল্যাটসহ সকল স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি এখন ট্রাস্টের অধীনে। যা ডায়েরিতে উল্লেখ অনুযায়ী, এরিকের ভরণ পোষণ ও জনকল্যাণে গঠিত।

x