করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে দুঃসময়ে দুঃসংবাদ দিলো জার্মানি

0 35

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: গোটা বিশ্ব করোনা তাণ্ডবে টালমাটাল। দেশে দেশে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর কাফেলা। আক্রান্ত হচ্ছে অগণিত মানুষ। জীবন-মৃত্যুর মাঝামাঝি দাঁড়িয়ে সবার মনে এখন প্রশ্ন একটিই- কবে দূর হবে করোনা ভাইরাস? সঙ্গে আরও একটি প্রশ্ন আছে- সেটি হলো, করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কার কতদূর? আর কতদিন লাগবে এ টিকা আবিষ্কারে?

পুরো পৃথিবী যখন করোনা ভাইরাসের অজানা আতঙ্কে দিনাতিপাত করছে তখন ভাইরাসটির ভ্যাকসিন আবিষ্কারে দিনরাত একাকার করে দিচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। দেশে দেশে চলছে উচ্চ পর্যায়ের গবেষণা। চলছে পরীক্ষামূলক প্রয়োগও। কিন্তু চূড়ান্ত সফলতা এখনও আসেনি।

মহামারির এই দুঃসময়ে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কার নিয়ে এরইমধ্যে দুঃসংবাদ এলো জার্মানির কাছ থেকে। চলতি বছরের শেষ দিকে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে- মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের পর জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনস স্প্যান বলেছেন, ‘করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করতে কয়েক বছর সময় লেগে যেতে পারে।’

স্থানীয় সময় রবিবার জার্মানির এআরডি টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জেনস স্প্যান বলেন, ‘এখনও কিছুই নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। সবাই চেষ্টা করছে। কিন্তু মনে হচ্ছে অনেকটা সময় লাগবে। কিছু সমস্যাও আছে, যা অতীতে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের সময় আমরা দেখেছি। তবে আমিই বেশি খুশি হবো- যদি আগামী কয়েক মাসের মধ্যে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়ে যায়।’

যেকোনও ভ্যাকসিন তৈরিকে চিকিৎসাশাস্ত্রের অন্যতম চ্যালেঞ্জিং ও কঠিন কাজ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এদিকে রবিবার আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট চলতি বছরের শেষ দিকেই করোনার একটি ভ্যাকসিন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ ব্যাপারে ওয়াশিংটন ডিসির লিঙ্কন মেমোরিয়াল টাউন হলে মার্কিন সংবাদ ফক্স নিউজের এক টকশোতে অংশ নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘পুরোদমে কাজ চলছে। আমরা দারুণভাবে আশাবাদী। আমাদের বিশ্বাস, চলতি বছরের শেষ দিকে করোনার ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে।’

ওই টকশোতে ট্রাম্প আরও বলেন, ‘চিকিৎসকরা বলতে পারেন, আমার এভাবে বলাটা ঠিক হচ্ছে না। তবুও আমি যা মনে করি, তাই বলছি। আশা করছি, শিগগিরই আমরা একটি ভ্যাকসিন পাবো।’

জার্মান ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি বায়োএনটেক করোনা প্রতিরোধে গেল ২৩ এপ্রিল সম্ভাব্য একটি ভ্যাকসিন মানবদেহে পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগ করে। যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানি ফাইজারের সঙ্গে যৌথভাবে ভ্যাকসিনটি নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে বাযোএনটেক। এরইমধ্যে জার্মানিতে ১২ জন স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে বিএনটি১৬২ নামের এই সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করা হয়েছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে প্রথমবারের মতো মানুষের শরীরে সম্ভাব্য একটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হলেও সেটির কোনও ফল এখনও পাওয়া যায়নি।

গেল ডিসেম্বরে চীনের উহান থেকে ধীরে ধীরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস এখন ২১০টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে বিস্তার লাভ করেছে। এরইমধ্যে গোটা বিশ্বে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩৫ লাখ ৮৯ হাজার মানুষ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে, মারা গেছে প্রায় ২ লাখ ৪৯ হাজার মানুষ। আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি।বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম:

Leave A Reply

Your email address will not be published.