করোনা প্রতিরোধে ১০০ কোটি টাকা চায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়

0 ৩১৯

বিডি সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ও জনসচেতনতা বাড়াতে জরুরি ভিত্তিতে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছে অর্থ বিভাগও। শিগগিরই এই বরাদ্দ দেয়া হবে বলেও জানা গেছে।

টাকা বরাদ্দের বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থ বিভাগের উপসচিব ড. মোহাম্মদ আবু ইউসুফ বলেন, টাকা বরাদ্দের বিষয়টি এখনও প্রক্রিয়াধীন। তবে শিগগিরই বরাদ্দ দেয়া হবে।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব সুশীল কুমার পালও একই কথা বলেন। তিনি বলেন, এখনও বরাদ্দ দেয়া হয়নি। তবে শিগগিরই বরাদ্দ পাব আশা করছি।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে গত ৫ মার্চ ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একটি চিঠি অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়, ‘স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ‘কোভিড-১৯’ এর চিকিৎসার নিমিত্তে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং জেলা/উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে উপদেষ্টা করে দুটি করে কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

“কোভিড-১৯’ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখতে হয়। এ জন্য সিসিইউ, আইসিইউ, আইসোলেশন ওয়ার্ড চালু, সহায়ক স্বাস্থ্যসেবা (সাপোর্ট কেয়ার), করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য কীট এবং বিভিন্ন যন্ত্রপাতি ক্রয়ের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের সব জেলা বা জেনারেল হাসপাতালসহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও বিশেষায়িত হাসপাতালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের জন্য চিকিৎসা সুবিধা স্থাপন/সম্প্রসারণ করা প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে চলতি (২০১৯-২০) অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবালয় অংশে সাধারণ থোক বরাদ্দ খাতে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রয়োজন।’

চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘এ অবস্থায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও ‘কোভিড-১৯’ এ আক্রান্ত মানুষের চিকিৎসা সুবিধা স্থাপন বা সম্প্রসারণের জন্য অর্থ বিভাগের অপ্রত্যাশিক খাত থেকে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.