কুবিতে সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় কুবিসাসের নিন্দা

163
কুবি প্রতিনিধি : কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) কর্মরত দৈনিক বিজনেস বাংলাদেশ পত্রিকার বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি সজীব বনিক কে মারধরের ঘটনায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (কুবিসাস)।
রবিবার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সমিতির দপ্তর সম্পাদক শাহাদাত বিপ্লব স্বাক্ষরিত একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে সাংবাদিকদের মারধরের ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি মোঃ জাহিদুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক তানভীর সাবিক।
বরিবার রাতে এক যৌথ বিবৃতিতে তারা বলেন, সমাজে সত্যের আয়না রুপি সাংবাদিকবৃন্দ অক্লান্ত পরিশ্রম করেন দেশ তথা মানবজাতির জন্য কিন্তু প্রতিনিয়ত বিভিন্নভাবে তাঁরা অন্যায়ের শিকার হচ্ছেন। অপরাধীর পরিচয় যেমন ভিন্ন কিছু হতে পারে না তেমনি এ অপরাধীরা পার পেয়ে যেতে পারে না। অবিলম্বে ঐ সাংবাদিকের উপর ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের দোষী নেতা-কর্মীদের কঠোর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা হোক।
জানা যায়, গত ৪ জানুয়ারি (শনিবার) রাত ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের ২০৪ নম্বর কক্ষে আসন (সিট) নিয়ে কক্ষ সাথীদের (রুমমেট) সঙ্গে কথা বলছিলেন সাংবাদিক সমিতির সদস্য ও দৈনিক বিজনেস বাংলাদেশ পত্রিকার বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি সজিব বণিক। এক পর্যায়ে কোন কারণ ছাড়াই সজিব বণিকের তৈজসপত্র ভাংচুর করেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ কর্মী রাজু আহমেদ। এতে বণিক প্রতিবাদ করলে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সদস্য ও শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক মিরাজ খলিফা, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উপ-আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক মুনতাসির হৃদয়, শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক ইমতিয়াজ শাহরিয়ার, ছাত্রলীগ কর্মী রাজু আহমেদ, ছাত্রলীগ কর্মী মুক্তার হোসাইনসহ বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী রড-লাঠি দিয়ে সাংবাদিক সজীবের উপর হামলা করে। হামলাকারীর কেউই ২০৪ নং কক্ষের বাসিন্দা নন। পরে খবর পেয়ে সাংবাদিক সমিতির নেতৃবৃন্দ সজিব বণিককে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেন। হামলাকারীরা সাংবাদিকদের হুমকিও প্রদান করেন। হলের নিজ কক্ষে সাংবাদিকের উপর এমন হামলায় সাংবাদিক সমিতি বিস্মিত।
এ ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি। এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনা সজিব বণিকসহ সাংবাদিক সমিতির কর্মীরা ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা নিয়ে চরম শঙ্কা প্রকাশ করছেন। সাংবাদিক সমিতির সদস্যদের বিভিন্ন সময়ে হুমকি দেয়া, লাঞ্ছিত করা, মারধর, পেশাগত কাজে বাধা দেওয়া আজ নতুন নয়। এরুপ কর্মকা- সাংবাদিক তথা গণমাধ্যমের স্বাধীনতার উপর নগ্ন আঘাত। পূর্বেও এমন ন্যক্কারজনক কর্মকাণ্ডগুলোর বিচারের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নির্লিপ্ততাই এর অন্যতম কারণ।
x